logo
মঙ্গলবার, ০৪ আগস্ট ২০২০, ২০ শ্রাবণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৭ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ইউনেস্কো যৌথভাবে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন করবে : প্রধানমন্ত্রী

ইউনেস্কো যৌথভাবে  ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপন  করবে : প্রধানমন্ত্রী
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বুধবার মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন



যাযাদি রিপোর্ট

বাংলাদেশের সঙ্গে যৌথভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন করবে ইউনেস্কো। বুধবার (২৭ নভেম্বর) গণভবনে অনুষ্ঠিত ‘মুজিববর্ষ উদযাপন’ প্রস্তুতি সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই তথ্য জানান।

‘মুজিববর্ষ উদযাপন’ প্রস্তুতি সভায় সভাপতিত্ব করেন ‘জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকী’ উদযাপনে গঠিত জাতীয় কমিটির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। 

বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন, ‘গত ২৫ নভেম্বর প্যারিসে ইউনেস্কো সদর দপ্তরে অনুষ্ঠিত সংস্থাটির ৪০তম সাধারণ পরিষদের পূর্ণাঙ্গ অধিবেশনে সর্বসম্মতিক্রমে বাংলাদেশের সঙ্গে ‘মুজিববর্ষ’ উদযাপনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

সভায় জানানো হয়, ২০২০ সালের ১৭ মার্চ রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধনী পর্ব অনুষ্ঠিত হবে। আগামী ৮ ডিসেম্বর থেকে বঙ্গবন্ধু জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানের একশ দিনের কাউন্ট-ডাউন শুরু হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিভিন্ন বিভাগ ও জেলা-উপজেলা পর্যায়ের এই কাউন্ট-ডাউনের উদ্বোধন করবেন।

সভার শুরুতে ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জন্ম শতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি’র প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী একটি ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন।

এই প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী প্রেজেন্টেশন উপভোগ করেন।’ এ সম্পর্কে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন বলেও তিনি জানান।



 



চার প্রকল্প দ্রম্নত শেষ করার নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর



যাযাদি রিপোর্ট ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে স্বাধীনতা স্তম্ভ নির্মাণসহ (তৃতীয় ধাপ) গুরুত্বপূর্ণ চারটি প্রকল্পের নির্মাণকাজ দ্রম্নত শেষ করতে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়কে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্টদের এ নির্দেশনা দেন প্রধানমন্ত্রী। মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় বাস্তবায়ন করছে এমন প্রকল্পগুলো পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করা হয়। চার প্রকল্পের মধ্যে বাকি তিন প্রকল্প হচ্ছে- অসচ্ছল মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য গৃহ নির্মাণ প্রকল্প, মুজিবনগর স্বাধীনতাযুদ্ধ স্মৃতি কমপেস্নক্স প্রকল্প এবং ৩৬০ ডিগ্রি প্যানোরোমা বাংলাদেশ প্রকল্প। এ সময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়কমন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, প্রধানমন্ত্রীর বিদু্যৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক ই-এলাহী চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তাবিষয়ক উপদেষ্টা মেজর জেনারেল (অব.) তারিক আহমেদ সিদ্দিকী, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আ ফ ম রুহুল হক, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো. নজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, প্রধানমন্ত্রীর প্রেসসচিব ইহসানুল করিম, স্থাপত্য অধিদপ্তরের প্রধান স্থপতি প্রকৌশলী এ এস এম আমিনুর রহমান, প্রখ্যাত \হভাস্কর হাশেম খান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক নিসার হোসাইন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী স্পেন যাচ্ছেন রোববার ২৫তম জাতিসংঘ জলবায়ু পরিবর্তন সম্মেলনে (কোপ-২৫) অংশ নিতে রোববার (১ ডিসেম্বর) স্পেন যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে ২ থেকে ১৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত এ সম্মেলন চলবে। তবে ৩ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরবেন। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক সংবাদ সম্মেলনে বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন এসব তথ্য জানান। ২৫তম বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে অন্তত ২৫ দেশের সরকারপ্রধানরা যোগ দেবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ সম্মেলনে বিশ্ব নেতাদের সামনে রোহিঙ্গা সমস্যাও তুলে ধরবেন। সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্মেলনে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি স্পেনের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন। এছাড়া নেদারল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গেও সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন প্রধানমন্ত্রী। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যসহ প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সদস্য এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়, সংশ্লিষ্ট অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তা ও জলবায়ু বিশেষজ্ঞরা রয়েছেন বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, জলবায়ু সম্মেলনে অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তন ও বাংলাদেশের অবস্থান বিষয়ক বক্তব্য দেবেন। তিনি জলবায়ু সংক্রান্ত বাংলাদেশের গৃহীত পদক্ষেপসমূহ তুলে ধরার পাশাপাশি জলবায়ু সংক্রান্ত ম্যান্ডেট আরও শক্তিশালী করার মাধ্যমে আর্থিক ক্ষতিপূরণের বিষয়টি বিবেচনার জন্য বিশ্ব নেতাদের প্রতি আহ্বান জানাবেন। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে নতুন ফরাসি দূতের সাক্ষাৎ রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ফ্রান্স সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত দেশটির নতুন রাষ্ট্রদূত জাঁ মারি সু। বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনার সঙ্গে তার কার্যালয়ে গিয়ে দেখা করেন নতুন দূত। পরে প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত বলেছেন রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে ফ্রান্স তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে। জ্বালানি খাতে বাংলাদেশকে সহযোগিতা করতে আগ্রহ প্রকাশ করে রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তাদের টেকসই জ্বালানি নীতি রয়েছে। তারা বাংলাদেশের জ্বালানি খাতে সহযোগিতা করতে আগ্রহী। দুই দেশের অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদারের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধু-২ স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণে সহায়তার ব্যাপারে তার দেশের আগ্রহের কথা জানান রাষ্ট্রদূত। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনায় বাংলাদেশের সাফল্যের প্রশংসা করেন জাঁ মারি। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশে আঘাত হানা ঘূর্ণিঝড় 'বুলবুল' থেকে রক্ষার জন্য ২২ লাখ মানুষকে নিরাপদ আশ্রয়ে নিতে তার সরকার সক্ষম হয়েছিল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে