logo
সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৫

  অনলাইন ডেস্ক    ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

বলিউডে আলো ছড়ালেন

মাত্র ২৬-এ পা দিয়েছেন 'স্টুডেন্টস অব দ্য ইয়ার' খ্যাত বলিউড অভিনেত্রী আলিয়া ভাট। কিন্তু এই বয়সেই যেন নিজেকে বিস্ময়কর এক অবস্থানে নিয়ে গেছেন তিনি। অনেক সিনিয়র অভিনেত্রীকে পেছনে ফেলে তরতর করে এগিয়ে চলছেন এই অভিনেত্রী। নতুন ছবির ক্ষেত্রে নির্মাতারা এখন সবার আগে আলিয়ার কথাই বিবেচনা করছেন। প্রায় প্রতিদিনই নতুন নতুন ছবির প্রস্তাব পাচ্ছেন তিনি। এ কারণে নিজের পারিশ্রমিকও অনেক বাড়িয়ে দিয়েছেন আলিয়া। তারপরেও শিডিউল খাতায় যোগ হচ্ছে নতুন নতুন ছবির নাম। শিডিউল না থাকায় 'বাহুবলি'র মতো সুপার-ডুপার হিট ছবির প্রস্তাবও বিনয়ের সঙ্গে ফিরিয়ে দিতে হয় তাকে। এবার তার ক্যারিয়ারে যোগ হলো আরও এক নতুন প্রাপ্তি। আবার এ বছরই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন এ তারকা। লিখেছেন- জাহাঙ্গীর বিপস্নব

বলিউডে আলো ছড়ালেন
আলিয়া ভাট
গত বছর আলিয়া ভাট অভিনীত 'গালি বয়' বক্স অফিসে রেকর্ড পরিমাণ ব্যবসা করার পর পরই যেন ভাগ্য খুলতে থাকে তার। 'গালি বয়' ছবির সাফল্যের পর গত ডিসেম্বরে এশিয়ার সেরা আবেদনময়ীর খেতাব অর্জন করেন তিনি। আর চলতি বছরের শুরু থেকেই যেন একের পর এক সুখের আবেশে ভাসতে থাকেন আলিয়া। নানা কারণেই চলতি বছরটি গুরুত্বপূর্ণ আলিয়ার কাছে।

তাজা খবর হচ্ছে, ৬৫তম ফিল্ম ফেয়ার আসরে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার ছিনিয়ে নিয়েছেন আলিয়া। আর এ পুরস্কারও এনে দিয়েছে 'গালি বয়'। এর মাধ্যমে পরপর দুইবার সেরা অভিনেত্রী হিসেবে ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড জিতলেন এ তারকা। গত বছর ফিল্ম ফেয়ারের ৬৪তম আসরে 'রাজি' ছবির জন্য সেরা অভিনেত্রী হয়েছেন আলিয়া ভাট। বিষয়টি নিয়ে বেশ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে আলিয়া ভাট বলেন, সত্যি এখনো আমার বিশ্বাস হচ্ছে না, যে আমি পর পর দুই বার ফিল্ম ফেয়ার অ্যাওয়ার্ড পাব। এমন সৌভাগ্য কজনেরই বা হয়। তা ছাড়া পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে অনেকটা লজ্জাও পাচ্ছিলাম, বড় বড় তারকাদের টপকিয়ে অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করা বিব্রতকরই বৈকি! এ পুরস্কার আমার একার নয়, এটা আমার সব ভক্তের এবং গালি বয় ছবির সব কলাকুশলীর। এ পুরস্কারের অনুপ্রেরণায় আরও অনেক দূর এগিয়ে যেতে চাই সাফল্যের সঙ্গে।'

অনেকে বলছেন, দীপিকা পাড়ুকোন এবং প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মতো চাহিদাসম্পন্ন তারকারা বিয়ে এবং সংসার নিয়ে ব্যস্ত থাকায় কদর বাড়ছে আলিয়ার। অন্য একদল বলছেন, কেবলমাত্র বাবা মহেশ ভাটের কারণেই আলিয়ার আজকের অবস্থান। তবে এসব কান কথাকে মিথ্যা প্রমাণ করতে চান আলিয়া। নিজের অনবদ্য অভিনয় আর কারিশমা দেখিয়েই নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করছেন বলে মনে করছেন এই তারকা। আলিয়া নিজেকে আরও উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার জন্য প্রতিনিয়ত নতুন কিছুর অনুশীলন করছেন। একটা তালিকাও তৈরি করেছেন।

আলিয়া বলেন, 'আমি পিয়ানো বাজানো শিখতে চাই। আমি কত্থক নাচও শিখতে চাই। একজন শিল্পী হিসেবে এটি আমার পরিকল্পনার অংশ। অভিনেত্রী হিসেবে আমি নিজেকে বিভিন্ন দক্ষতায় সজ্জিত করতে চাই। আমি বুঝতে পেরেছি, অভিনয় মানে শুধু সেটা নয় যে, তুমি শুধু ক্যামেরার মুখোমুখি হতে পারলে।

এই ভাবনাটার মধ্যে অনেক কিছু যোগ করা যায়। আর আমি চেষ্টা করছি যতটা সম্ভব এই যোগ করার পরিমাণটা বাড়িয়ে তুলতে।'

আলিয়া জানান, তিনি তার বড় বোন পূজা ভাটকে আদর্শ হিসেবে মেনে চলেন। তিনি সব সময় বোনের পরামর্শ নিয়েই সামনের পথগুলো চলতে চান। আলিয়ার ভাষ্য, 'আমার বড় বোন স্বল্পসময়ে একাধিক জনপ্রিয় ছবি উপহার দিয়েছেন। তিনি আমার অভিনয় গুরু। আমি ক্যারিয়ারে তার পদাঙ্ক অনুসরণ করেই চলতে চাই। আমার বড় বোন সবসময় আমার মাথার ওপর ছায়া হয়ে রয়েছেন।'

২৬ বছর বয়সী এ অভিনেত্রী ছবির পাশাপাশি একাধিক প্রসাধনী ব্র্যান্ডের শুভেচ্ছাদূত হিসেবেও নাম লিখিয়েছেন। ইতোমধ্যেই বিজ্ঞাপনচিত্রগুলো বিভিন্ন চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে। নিজের ফ্যাশন সম্পর্কে আলিয়া বলেন, 'যতই বড় হচ্ছি; ততই আমার স্টাইলও পরিবর্তন হচ্ছে। স্থান-কাল-পাত্র বুঝেই মেক্যাপ গেটাপ করে থাকি।' নিজের সৌন্দর্যের ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে আলিয়া আরও বলেন, 'আমার কাছে আকর্ষণীয় সৌন্দর্য হচ্ছে, রূপচর্চাবিহীন চেহারা। আপনি যদি সুন্দর হন, তবে মেকআপ, চাকচিক্য পোশাক এবং সুবিন্যস্ত চুল ছাড়াই আপনাকে আকর্ষণীয় লাগবে।' মজার বিষয় হচ্ছে, ফ্যাশন সচেতন আলিয়া পুরুষের পারফিউম ব্যবহার করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, আমি পুরুষদের পারফিউম ব্যবহার করতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। তবে প্রতিমাসেই পারফিউম বদল করে থাকি।

নতুন নতুন ছবি এবং অভিনয়ের পাশাপাশি বর্তমানে বিয়ে নিয়েও ব্যাপক আলোচনায় রয়েছেন এ অভিনেত্রী। বলিউড অভিনেতা রনবীর কাপুরের সঙ্গে আলিয়া যেভাবে দেশ-বিদেশে ঘুরে বেড়াচ্ছেন, আর তাদের নিয়ে যেভাবে মিডিয়া খবর প্রকাশ করছে- তাতে যেন সবাই ধরেই নিয়েছেন, তারা এখন স্বামী-স্ত্রী। যদিও কাগজে কলমে এখনও বিয়ে করেননি তারা। তবে দুই পরিবারের মধ্য যাতায়াত এবং যোগাযোগ চলছে বেশ।

তবে বিয়ে নিয়ে এ আলোচনা-সমালোচনার ইতি টানা হচ্ছে ২০২০ সালেই। চলতি বছরের শেষের দিকে অর্থাৎ ডিসেম্বরেই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন রণবীর-আলিয়া। জানা গেছে, মহেশ ভাট পরিবারও রণবীরকে জামাই হিসেবে ইতোমধ্যেই মেনে নিয়েছেন। গত বছর মহেশ ভাট 'দ্য টেলিগ্রাফ'কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে রণবীর সম্পর্কে বলেন, 'অবশ্যই ওরা প্রেম করছে। আমি রণবীরকে ভালোবাসি... ও খুব ভালো ছেলে। ওদের সম্পর্ককে ওরা কীভাবে এগিয়ে নিয়ে যাবে সেটা একান্তই ওদের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।'

বর্তমানে সঞ্জয় লীলা বানসালীর 'গাঙ্গুবাঈ' ছবির শুটিং করছেন আলিয়া। এরপর করণ জোহরের ড্রিম প্রজেক্ট 'তখত'-এর শুটিং শুরু করবেন আলিয়া। এর মাঝেই বেজে উঠল বিয়ের সানাই। বলিউড আরও এক রাজকীয় বিয়ের সাক্ষী হতে চলেছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে