logo
রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

তবুও স্বপ্ন বুনে যাই

তবুও স্বপ্ন বুনে যাই
পরীমনি
জাহাঙ্গীর বিপস্নব

পরীমনি। চলমান সময়ের আলোচিত ও সমালোচিত চিত্রনায়িকা। ছবি মুক্তি না পেলেও বছর জুড়েই থাকেন গুঞ্জনে ভরপুর/ আলোচনা-সমালোচনা কিংবা বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে। কখনও বেফাঁস মন্তব্য করে ফেঁসে যান, কখনও অসহায় শিশুদের পাশে দাঁড়িয়ে প্রশংসা কুড়ান, কখনও আবার খোলামেলা ছবি পোস্ট করে নেটিজেনদের মাঝে উত্তাপ ছড়ান। শুধু কি তাই! সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সবাইকে ছাড়িয়ে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় এই নায়িকা। কিন্তু এতকিছুর পরও ভাগ্য যেন কিছুতেই সহায় হচ্ছে না তার। নায়িকা হওয়ার সব যোগ্যতা থাকার পরেও কোনো এক রহস্যের কারণে খুলছে না তার ভাগ্যের শিঁকে। ডজনখানেক ছবি মুক্তি পেলেও পরী অভিনীত কোনো ছবিই আশানুরূপ ব্যবসা করতে পারেনি। জ্বলতে জ্বলতেই যেন নিভে গেছে আশার আলো। তারপরও সাফল্যের সন্ধান করে চলেছেন তিনি। মুক্তির আগেই চলচ্চিত্রে রীতিমতো হইচই ফেলে দেয়া এ অভিনেত্রীর অভিষেক হয়েছিল ২০১৫ সালে 'ভালোবাসা সীমাহীন' চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। শাহ আলম মন্ডল পরিচালিত এ ছবিতে তার নায়ক ছিলেন জায়েদ খান। কিন্তু মুক্তির আগে যে আলোচনার ঝড় উঠেছিল, ছবি মুক্তির পর আচমকাই যেন থেমে যায় সে ঝড়। এতে অনেকটা আশাহত হলেও থেমে থাকেননি পরী।

চলতি বছরেও নতুন আশায় বুক বেঁধেছিলেন তিনি। বছরের শুরুতেই (৭ ফেব্রম্নয়ারি) মুক্তি পায় পরীমনি অভিনীত 'আমার প্রেম আমার প্রিয়া' ছবিটি। এ ছবির মাধ্যমে নতুন করে জ্বলে ওঠার প্রত্যাশা ছিল পরীর। কিন্তু মুক্তির প্রথম দিনেই ছবিটির হতাশাজনক ফলাফলে নিরাশা নেমে আসে পরীর মনেও। হতাশার রেশ কাটিয়ে ভাগ্য বদলাতে পরের সপ্তাহে (১৪ ফেব্রম্নয়ারি) হঠাৎ করেই প্রেমিক তামাম হাসানের সঙ্গে বাগদান সম্পন্ন করেন তিনি। বলেছিলেন, কোনো এক ১৪ ফেব্রম্নয়ারিতেই তারা বিয়ে করবেন। অনেকের ধারণা ছিল, চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ারের আখের গোছাতেই ঘটা করে বিয়ের প্রস্তুতি নিয়েছেন এই নায়িকা। কিন্তু বাস্তবে দেখা গেছে উল্টো চিত্র। বিয়ের আগেই সমাপ্তি ঘটে তামিম-পরীর সম্পর্ক। বিয়ের পর মিডিয়া ছাড়তে হবে- শশুরবাড়ির এই ঘোষণার কারণেই তামিম থেকে নিজেকে বিচ্ছিন্ন করেন পরী। তুমুল আলোচনা-সমালোচনার মাঝেই নতুন করে হিসাব কষেন পরীমনি। স্বপ্ন দেখেন মনের মতো কোনো ছবি কিংবা কাজ দিয়ে নতুন কোনো আলোচনা সৃষ্টি করে। কদিন পরেই প্রস্তাব আসে পরিচালক চয়নিকা চৌধুরীর প্রথম ছবি 'বিশ্ব সুন্দরী'তে অভিনয়ের। তাও আবার নাম ভূমিকায়। সব বেদনা চাপা রেখে আনন্দে ভাসতে থাকেন পরী। সানন্দে কাজ শুরু করেন

তিনি। দেখতে দেখতে ছবিটির কাজও শেষ করেন তিনি। 'বিশ্ব সুন্দরী'র

পর নতুন কোনো ছবিতে হাত দেননি আর পরীমনি। কারণ হিসেবে তিনি জানিয়েছেন, বিশ্ব

সুন্দরী মুক্তির আগে নতুন কোনো ছবিতে কাজ করবেন না। এ ছবির ফলাফলের পর নতুন সিদ্ধান্ত নেবেন। বিশ্ব সুন্দরী তার অনেক স্বপ্নের একটা প্রকল্প। এই প্রকল্পের বাইরে নিজেকে সম্পৃক্ত রাখতে চান না।

পরীর সেই স্বপ্নের প্রকল্প এখন দর্শকের দ্বারপ্রান্তে। আগামী মাসেই (৬ ডিসেম্বর) মুক্তি পাচ্ছে বহুল প্রতীক্ষিত 'বিশ্ব সুন্দরী' ছবিটি। এটি নিশ্চিত করেছেন ছবির প্রযোজক সান মিউজিক অ্যান্ড মোশন পিকচার্স লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী অজয় কুমার কুন্ডু। এরই মধ্যে ছবিটির সম্পাদনার কাজ প্রায় শেষ। ডাবিংও শেষের পথে জানালেন ছবির প্রযোজক। সবকিছু শেষ করে সেন্সরে জমা দেয়া হবে। 'বিশ্ব সুন্দরী'র মুক্তির সংবাদে দারুণ খুশি ছবির নায়িকা পরীমনি। তিনি বলেন, 'এটি একটি আনন্দের সংবাদ। সারা বছর দর্শকরা ভালো ছবির জন্য অপেক্ষা করেন। আমরা শিল্পীরা একটি ভালো ছবি দর্শককে উপহার দেয়ার জন্য অপেক্ষায় থাকি। সদ্য শেষ করা একটি ছবি মুক্তি পেতে যাচ্ছে। আমি খুবই খুশি।' তিনি বলেন, 'স্বপ্নজাল'-এ অভিনয় করার পর থেকেই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম, ভালো মানের চলচ্চিত্র, মন ছুঁয়ে যাওয়ার মতো চিত্রনাট্য ও চরিত্র না পেলে আর কখনোই চলচ্চিত্রে কাজ করব না। 'বিশ্ব সুন্দরী' চলচ্চিত্রে আমার অভিনীত চরিত্রটি শুধু আমি নই, যে কোনো অভিনেত্রীর জন্যই বিশেষ কিছু। আশা করি, দর্শক আমার থেকে নতুন কিছু পেতে যাচ্ছেন।'

'বিশ্ব সুন্দরী' ছবিতে পরীমনির বিপরীতে অভিনয় করেছেন চিত্রনায়ক সিয়াম। এতে সিয়ামের চরিত্রের নাম স্বাধীন, পরীমনির চরিত্রের নাম শোভা। এই ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন চম্পা, ফজলুর রহমান বাবু, মনিরা মিঠু, আনন্দ খালেদ, সীমান্ত প্রমুখ। অচিরেই ছবিটি নিয়ে প্রচারণায় নামবেন ছবির নির্মাতা ও কলাকুশলীরা। তবে প্রচারণায় বেশ চমক আছে উলেস্নখ করে পরীমনি বলেন, 'এই ছবির প্রচারণা নিয়ে আর দশটা ছবির থেকে একটু ভিন্ন ধরনের পরিকল্পনা রয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আমরা সর্বোচ্চ আন্তরিকতা দিয়ে দর্শকদের কাছে ছবিটি পৌঁছে দিতে চাই।'

পরীমনি আরও বলেন, 'আমি অনেকদিন ধরেই এরকম একটি ছবি ও চরিত্র খুঁজছিলাম। শোভা চরিত্রটি আমার মনের মাঝে লালিত দীর্ঘদিনের একটা চরিত্র। নানা রকম রহস্য দিয়ে সাজানো চরিত্রটি। এর বেশি কিছু বলব না। এটি একটি গল্প- প্রেমের, মানবতার গল্প, এই গল্প জীবনের জয়গানের। সৌন্দর্য যে শুধু বাহ্যিক নয়, সৌন্দর্য হতে পারে মন ও মননের; তা শক্তিশালী একটি চিত্রনাট্যের মাধ্যমে এই গল্পে ফুটে উঠেছে। আশা করি, এ ছবির মাধ্যমে আমার ক্যারিয়ারে নতুন এক পালক যুক্ত হবে। যার নাম সাফল্যের পালক।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে