logo
মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫

  অনলাইন ডেস্ক    ০৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

রুপালি পদার্য় পূণির্মার আলো

জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা পূণির্মা। জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘এ জীবন তোমার আমার’ ছবির মাধ্যমে তার চলচ্চিত্র জগতে পথচলা শুরু হয়েছিল। এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। দুই দশকের ক্যারিয়ারে চিত্রনায়ক মান্না, রিয়াজ, ফেরদৌস ও শাকিব খানের সঙ্গে জুটিবেঁধে অনেক ব্যবসাসফল ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। অভিনয়ের স্বীকৃতিস্বরূপ কাজী হায়াৎ পরিচালিত ‘ওরা আমাকে ভাল হতে দিল না’ (২০১০) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে তিনি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। দীঘর্ বিরতির পর আবারও বড়পদার্য় ফিরছেন তিনি। বন্ধু চিত্রনায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে জুটিবেঁধে দুটি ছবিতে অভিনয় করবেন তিনি। এই তারকাকে নিয়ে লিখেছেন- আকাশ নিবির

রুপালি পদার্য় পূণির্মার আলো

বতর্মানে আপনার ব্যস্ততা প্রসঙ্গে বলুন- এ প্রশ্নের জবাবে পূণির্মা বলেন- আমার উপস্থাপনায় আরটিভিতে ‘এবং পূণির্মা’ অনুষ্ঠানটি নিয়মিত প্রচার হচ্ছে। এর পাশাপাশি চিত্রনায়ক ফেরদৌসের বিপরীতে ও নঈম ইমতিয়াজ নেয়ামুলের পরিচালনায় দুটি মৌলিক গল্পের ছবি ‘জ্যাম’ ও ‘গাঙচিল’-এ চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। আরও কয়েকটি ছবিতে কাজের কথা চলছে। এর বাইরে ঈদের কয়েকটি নাটকেও দেখা যাবে আমাকে। আমি আর ফেরদৌস বিটিভির জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’ উপস্থাপনা করব। আপনি তো ‘গাঙচিল’ ছবিতে চুক্তিবদ্ধ হয়েছেন। ছবিটি দিয়ে আপনার অভিমত কী? এ প্রশ্নের জবাবে পূণির্মা বলেন, ‘আমার নতুন ছবি ‘গাঙচিল’ একেবারেই মৌলিক গল্পের ছবি। আমরা চেয়েছি দেশের গল্প বলতে। যেখানে সমাজের বাস্তবচিত্র, প্রেম, বিরহ সবই আছে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ‘গাঙচিল’ উপন্যাস অবলম্বনে ছবিটি নিমির্ত হবে। শুটিং শুরু হবে ডিসেম্বর থেকে। আমরা চেষ্টা করছি, দশর্কদের সত্যিকার অথের্ একটি ভালো ছবি উপহার দিতে। গাঙচিল ছবির গল্প সম্পকের্ কিছু বলুন- ‘গাঙচিল’ ছবির গল্প নোয়াখালীর একটি চর ও সেখানকার মানুষের জীবনের নানা গল্প নিয়ে। উপন্যাসটি এরই মধ্যে যারা পড়েছেন, তারা নিশ্চয়ই এ সম্পকের্ জানেন। এখানে আমি একজন এনজিওকমীর্ চরিত্রে অভিনয় করব। ফেরদৌস একজন সাংবাদিক। চরে দুবির্ক্ষ দেখা দিলে পেশাগত কারণে আমি আর ফেরদৌস সেখানে পেঁৗছাই। এভাবেই গল্প এগিয়ে যাবে। বড় পদার্য় বন্ধু চিত্রনায়ক ফেরদৌসের সঙ্গে লম্বা বিরতির পর জুটি বঁাধছেন, অনুভ‚তি কী? সবের্শষ কত বছর আগে আমরা একসঙ্গে বড়পদার্য় কাজ করেছি তাও মনে নেই। সম্ভবত রাক্ষুসী বা বলো না ভালোবাসি ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছি। তবে দশর্ক আমাদের জুটি হিসেবে পছন্দ করে। কারণ বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনা, স্টেজ পারফরম্যান্সের মাধ্যমে আমরা মোটামুটি দশের্কর সামনেই ছিলাম। আমাদের জুটির ওপর দশের্কর ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ করেছি। তাই আশা করছি, মৌলিক গল্পের দেশীয় ছবি ‘গাঙচিল’ দিয়ে আমরা দশর্কদের আবারও হলমুখী করতে পারব। প্রায় একসঙ্গেই দুই ছবি দিয়ে রুপালি পদার্য় প্রত্যাবতর্ন। আপনার ইচ্ছা কী এমনটাই ছিল? একটু হেসে পূণির্মা বলেন- পরিকল্পনা করে কোনো কিছু হয় না। আমি ‘গাঙচিল’ ছাড়াও কিছুদিন আগে ‘জ্যাম’ নামের আরেকটি ছবিতে অভিনয়ের জন্য চুক্তিবদ্ধ হয়েছি। সেই ছবিতেও আমার সহশিল্পী ফেরদৌস। ‘জ্যাম’ ছবিটি নিমির্ত হবে প্রয়াত চিত্রনায়ক মান্নার প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান কৃতাঞ্জলি ফিল্মসের ব্যানারে। মান্না স্মরণে কিছু বলুন- আমার প্রিয় নায়ক ছিলেন মান্না ভাই। দশর্ক আমাদের জুটিকে আপন করে নিয়েছিলেন। আমাদের ছবিগুলো দারুণ ব্যবসায়িক সফলতা পেয়েছিল। এখনো তাকে খুব মিস করি। আল্লাহ তাকে বেহেশত দান করুক। চলচ্চিত্র জীবনে প্রাপ্তি কতটুকু? এ প্রসঙ্গে পূণির্মা বলেন- প্রতিটি মানুষের তো প্রাপ্তির শেষ থাকে না। তবে যেহেতু আমি চলচ্চিত্রের মানুষ, তাই বলতে চাইÑ প্রতিটি সিনেমাপ্রিয় ভক্তদের এত সম্মান আর এত ভালোবাসা পাওয়াটাই আমার জীবনের সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। ভবিষ্যত পরিকল্পনা কী? এমন প্রশ্নের জবাবে পূণির্মা জানানÑ ভবিষ্যৎ নিয়ে খুব একটা ভাবি না। তবে সব সময় চেষ্টা করেছি মৌলিক গল্পের ছবিতে কাজ করতে। কাজের সংখ্যা কম হোক, তবে সেটি যেন সারা জীবন মানুষের হৃদয়ে গেঁথে থাকে। সব সময় চলচ্চিত্রের সঙ্গেই আছি, শেষ পযর্ন্ত চেষ্টা করব, চলচ্চিত্রের সঙ্গেই থাকতে। আপনার প্রিয় সব নিয়ে বলুনÑ এই প্রশ্নের জবাবে পূণির্মা বলেনÑ আমার প্রিয় রং সবুজ ও কালো। প্রিয় বন্ধু- ফেরদৌস। আমাদের বন্ধুত্ব প্রায় ২৩ বছরের। তবে সুযোগ পেলেই ফেরদৌসকে আমি জ্বালাই। প্রিয় পোশাক দেশীয় পোশাকে বেশি স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। প্রিয় দেশীয় খাবারের মধ্যে চিকেন খুব প্রিয়। এ ছাড়া পিৎজা আর বাগার্রও ভালো লাগে। চকলেট আর আইসক্রিম তো আছেই। আমি সুযোগ পেলেই ভ্রমণ করি। আমেরিকাতে যাওয়া হয় বেশি। এ ছাড়া সুইডেন, লন্ডন, কানাডা, অষ্ট্রেলিয়াতেও যাওয়া হয়। আমার জীবনের প্রিয় মুখ- আমার মেয়ে আরশিয়া উমায়জা। ঢালিউডের মধ্যে প্রিয় চিত্রনায়িকা হচ্ছে- আমার আইডল চিত্রনায়িকা মৌসুমী। আর দেশের বাইরে কাজল ও কারিনা কাপুর। আপনার রূপ ও ফিটনেসের রহস্য কী? এমন প্রশ্নের জবাবে হাস্যোজ্বল পূণির্মা বলেন- এটা হয়তো আল্লাহ প্রদত্ত। তবে সুযোগ পেলে রূপচচার্ করি। তখন মনও বেশ ভালো থাকে। মাঝে মাঝে ডায়েট করার চেষ্টা করি, কিন্তু প্রেসার কমে যায়। তাই সুযোগ পেলেই খাই।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে