logo
রোববার ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষেপ

অতিথি পরিচালক হলেন অজয় দেবগন

তারার মেলা ডেস্ক

অজয় দেবগন এর আগে 'ইউ মি অর হাম' ছবির পরিচালকের সিটে বসেছিলেন। নানা সাক্ষাৎকারে আবারও ছবি পরিচালনা করার ইচ্ছেও ব্যক্ত করেছেন তিনি। কিন্তু পরিচালনা করা হচ্ছিল না। এত তাড়াতাড়ি পরিচালকের আসনে বসতে হবে তাকে, সেটা বোধহয় ভাবেননি অজয়। তাও আবার অনিচ্ছা সত্ত্বেও। খবর ভারতীয় গণমাধ্যমের।

'ভুজ : দ্য প্রাইড অব ইন্ডিয়া' ছবির শুটিং চলছে। ছবিতে অজয় ছাড়াও রয়েছেন সঞ্জয় দত্ত, সোনাক্ষী সিনহা, পরিণীতি চোপড়াসহ অনেকে। ছবির পরিচালক অভিষেক দুধাইয়া। এর আগে রোহিত শেট্টির সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করা অভিষেকের এটি প্রথম ছবি।

আর তাকে নিয়েই তৈরি হয়েছে সমস্যা। শুটিং ইউনিটের সূত্র বলছে, অভিষেক সেটে মহিলাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেন। তিনি কোনো মহিলাকে শারীরিক নিগ্রহ করেছেন এমন অভিযোগ অবশ্য নেই। কিন্তু অভিষেকের আচরণ নিয়ে ইউনিটের নারীরা বেজায় বিরক্ত।

# মিটু নিয়ে এত হইচইয়ের পরেও কীভাবে কেউ এমন অসংযত আচরণ করেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে টিমের ভেতরেই। শুটিং সেটের সব নারীরা নাকি অজয়ের কাছে গিয়ে অভিষেককে নিয়ে অভিযোগ করেন। পরিস্থিতির জটিলতা বুঝে অজয় নিজেই বাকি অংশ পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেন। প্রযোজকেরাও তাতে সম্মতি জানান। তাই 'ভুজ'-এর অতিথি পরিচালক অজয় আর তা নিয়ে কিন্তু পুরো ইউনিট মুখে কুলুপ এঁটেছে।

ক্যানসারে আক্রান্ত চিত্রপরিচালক জাকির খাঁন

তারার মেলা রিপোর্ট

জীবন-মরণ সন্ধিক্ষণে চলচ্চিত্র নির্মাতা মোহাম্মদ জাকির খাঁন। তিনি টিসু্য ক্যানসারে আক্রান্ত হয়েছেন। চিকিৎসক জানিয়েছেন, যথাসময়ে চিকিৎসা নিলে বাঁচার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য দ্রম্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করা জরুরি। ব্যয়বহুল এ চিকিৎসার জন্য কর্মজীবনে অর্জিত সঞ্চয়, ভিটেমাটি বিক্রি করেও চিকিৎসার ব্যয় বহন করা সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য প্রধানমন্ত্রীসহ সমাজের বিত্তশালীদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন জাকির খাঁন।

মোহাম্মদ জাকির খাঁন বলেন, 'চলচ্চিত্রের কল্যাণের জন্য কাজ করেছি দীর্ঘ ৩৪ বছর। মরণব্যাধি ক্যানসারে আক্রান্ত হওয়ার পর জীবনের অর্জিত সব সঞ্চয় ব্যয় করেছি।'

'পৈতৃক ভিটেমাটি বিক্রি করেও কোনো উপায় দেখছি না। ইতোমধ্যে দেশ এবং দেশের বাইরে চিকিৎসার জন্য প্রায় ১৮ লাখ টাকা ব্যয় করেছি। চিকিৎসক জানিয়েছেন, অন্তত আরো ৬টি ইনজেকশন নিতে হবে। যার মূল্যসহ ব্যয় হবে ৭ লাখ টাকা। কিন্তু এখন আমার কাছে নিজ প্রাণটুকু ছাড়া আর কিছুই অবশিষ্ট নাই।'

ব্যক্তিগত জীবনে চার কন্যাসন্তানের জনক জাকির খাঁন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, 'চার মেয়ের মধ্যে দুই মেয়ের বিয়ে হলেও স্কুলপড়ুয়া আরও দুই কন্যাসন্তান আছে। যদি সমাজের বিত্তশালীদের সহায়তায় সুস্থ হয়ে কর্মজীবনে ফিরতে পারি তবেই তাদের মুখে খাবার জুটবে এবং হাসি ফুটবে। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি থেকে কিছু অর্থ সহায়তা পেয়েছি, যা অনেক আগেই ব্যয় করেছি। তাই বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ দেশের বিত্তবানদের কাছ থেকে অর্থসহ সার্বিক সহায়তা প্রত্যাশা করছি।'

মোহাম্মদ জাকির খাঁন এখন নরসিংদী সদর উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের নিজ গ্রামে রয়েছেন।

আসিফের মাদক মামলার প্রতিবেদন ১৫ অক্টোবর

তারার মেলা রিপোর্ট

অফিসে চার বোতল টাকিলা বিদেশি মদ রাখার অপরাধে কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরের বিরুদ্ধে করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ১৫ অক্টোবর দিন ধার্য করেছেন আদালত।

মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের দিন ধার্য ছিল গতকাল বুধবার। কিন্তু মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা (আইও) প্রতিবেদন দাখিল না করায় ঢাকা মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেন নতুন এ দিন ধার্য করেন।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৬ জুন পান্থপথের আর্ব এন্টারটেইনমেন্ট তেজগাঁও থানার তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি আইনের একটি মামলায় কণ্ঠশিল্পী আসিফ আকবরকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তারের সময় আসিফ আকবরের অফিসকক্ষে চার বোতল অবৈধ টাকিলা মদ পাওয়া যায়।

মদ পাওয়ার পর তা পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য মাদকদ্রব্য অধিদপ্তরে পাঠানো হয়। লাইসেন্স ছাড়া বিদেশি মদ নিজের দখলে রাখায় তার বিরুদ্ধে ২০১৯ সালের ২৩ জুলাই তেজগাঁও থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ৩৬ (১) টেবিল এর ২৪ (ক) ধারায় মামলা করেন সিআইডি পুলিশের সাইবার তদন্ত শাখার উপপরিদর্শক প্রশান্ত কুমার সিকদার।

শাহ আবদুল করিম স্মরণে 'মহাজনের নাও'

তারার মেলা রিপোর্ট

সুবচন নাট্য সংসদের আলোচিত প্রযোজনা 'মহাজনের নাও'। বাউলসম্রাট শাহ আবদুল করিমের জীবন, সংগীত ও দর্শন নিয়ে গড়ে উঠেছে নাটকটির গল্প। এটি রচনা করেছেন শাকুর মজিদ। নির্দেশনায় রয়েছেন সুদীপ চক্রবর্তী।

১২ সেপ্টেম্বর বাউলসম্রাট শাহ আবদুল করিমের দশম মৃতু্যবার্ষিকী। এ উপলক্ষে আগামীকাল ১৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টায় শিল্পকলা একাডেমির পরীক্ষণ থিয়েটার মিলনায়তনে নাটকটির ১২৫তম প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে। এ প্রদর্শনী শাহ আবদুল করিমের স্মৃতির উদ্দেশে উৎসর্গ করা হবে। মঞ্চায়ন শেষে শাহ আবদুল করিমের জীবন, দর্শন এবং নাটকের ১২৫তম সন্ধ্যা পূর্ণ করা নিয়ে আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানা গেছে।

নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন আহাম্মদ গিয়াস, আসাদুল ইসলাম, আমিরুল ইসলাম বাবুল, আনসার আলী, সোনিয়া হাসান সুবর্ণা, ইমরান হোসেন, ইমতিয়াজ, সোহেল, রাসেল, তানভীর প্রমুখ।

বাংলাদেশের ভাটি অঞ্চল সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলায় ১৯১৬ সালে জন্ম নেন সাধক শাহ আবদুল করিম। তার জীবনের তত্ত্ব কথা ও জীবনদর্শন নিয়ে এ নাটকটি রচনা করেন শাকুর মজিদ। নাটকে দেখা যায়- বাউল করিম রাখাল বালক, গরুর পাল নিয়ে ছুটে চলে গ্রামের মেঠোপথে, দোতারা হাতে নদীর তীরে হাঁটে, রাখাল বালক হাঁটতে হাঁটতে গান বাঁধে। তার গানে থাকে ভাটির কথা, অনাহারি কৃষকের কথা। গানে গানে মানুষের দুঃখে করিম কাঁদে।

শাফিক মাহমুদের নতুন গান

তারার মেলা রিপোর্ট

এফ এ সুমনের সুর ও সংগীতে নতুন একটি গানে কণ্ঠ দিলেন এই সময়ের সুরকার ও কণ্ঠশিল্পী শফিক মাহমুদ। গানটির শিরোনাম 'বান্ধি নাইরে ঘর'। গানটির কথা লিখেছেন আলভী রহমান তপু। গানটি প্রকাশ করছে ধ্রম্নব মিউজিক স্টেশন (ডিএমএস)।

ছোট বেলা থেকেই গানের সঙ্গে সখ্য শফিক মাহমুদের। প্রথমে প্রিয় শিল্পীর গান নিজেই নিজেই মুখস্থ করে গাইতেন তিনি। সেই গানেই আকৃষ্ট করেন কাছের মানুষদের। এরপর একাধিক ওস্তাদের কাছে গানের তালিম নিয়েছেন শফিক মাহমুদ। এই পর্যন্ত প্রায় ২০টির বেশি গান প্রকাশ করলেও ৩০টিরও বেশি গানে সুর দিয়েছেন শফিক মাহমুদ। তার সুরে গান গেয়েছেন এই সময়ের জনপ্রিয় অনেকেই। গানের কথার সঙ্গে মিল রেখে হৃদয় দোলানো গল্পে গানটির ভিডিও নির্মাণ করেছেন শামীম আহসান।

শুরু হচ্ছে ম্যাজিক বাউলিয়ানা

তারার মেলা রিপোর্ট

দেশের তরুণ প্রজন্মকে এবং বিশ্বমঞ্চে বাংলা লোকগানের চিরন্তন আবেদনের সঙ্গে পরিচয় করানোর উদ্দেশ্যে আয়োজন করা হয় লোকগানের রিয়েলিটি শো। প্রতি বছরের ন্যায় এবারেও মাছরাঙা টেলিভিশনে শুরু হচ্ছে 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০১৯'।

\হআয়োজনটি সান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পৃষ্ঠপোষকতা করছে স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেড। প্রতিযোগিতাটি সবার জন্য উন্মুক্ত। বাংলাদেশের যেকোনো নাগরিক এতে অংশ নিতে পারবেন।

গতকাল বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা করা হয় 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা'র তৃতীয় আসরের। সেখানে উপস্থিত ছিলেন সান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান এবং মাছরাঙা টেলিভিশন ও স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর অঞ্জন চৌধুরী, স্কয়ার টয়লেট্রিজ লিমিটেডের হেড অফ অপারেশনস মালিক মো. সাঈদসহ সংশ্লিষ্ট আরো অনেকেই।

বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ফোক রিয়েলিটি শো 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা'র তৃতীয় আসরের রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এটি চলবে আগামী ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। বাংলাদেশের ৭টি অঞ্চল - ঢাকা, চট্টগ্রাম, সিলেট, রাজশাহী, রংপুর, কুষ্টিয়া ও ময়মনসিংহে অনুষ্ঠিত হবে 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০১৯'র অডিশন রাউন্ড।

ম্যাজিক বাউলিয়ানার এই আয়োজনে বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন শফি মন্ডল, ড. নাশিদ কামাল এবং চন্দনা মজুমদার।

অডিশন রাউন্ড থেকে বাছাই করা শিল্পীদের পরবর্তী পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য নির্বাচিত করা হবে। তাদের নিয়ে করা হবে গ্রম্নমিং সেশন। সেখানে শিল্পীদের সংগীত পরিবেশনা, সুরের ব্যবহার, যথাযথ স্কেল নির্বাচন, শুটিং-সংক্রান্ত বিষয়ে ধারণা দেয়ার পাশাপাশি ক্যামেরার সামনে দাঁড়ানো, মাইক্রোফোনের পজিশন, শব্দ প্রক্ষেপণ, পারফর্মিং আর্টসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় বিষয়ে ধারণা দেয়া হবে।

বাছাই করা এই প্রতিযোগীদের নিয়ে শুরু হবে 'ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০১৯'র মূল প্রতিযোগিতা। পর্যায়ক্রমে এদের মধ্য থেকে সেরা ৩ শিল্পীকে ম্যাজিক বাউলিয়ানা ২০১৯'র বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হবে। বর্ণাঢ্য এই আয়োজন, তারকা শিল্পীদের অংশগ্রহণ আর প্রতিযোগীদের হাড্ডাহাড্ডি লড়াই দেখা যাবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে