logo
বুধবার ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ০১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

'গলায় গলায় বন্ধুত্ব'

'গলায় গলায় বন্ধুত্ব'
সেলেনা গোমেজ ও টেইলর সুইফট
রায়হান রহমান

যে সম্পর্ক তিল থেকে তাল হলেও ভেঙে যাওয়ার ভয় থাকে না- সেটাই বন্ধুত্ব। এমন সম্পর্কের রেশ আমাদের উস্‌কে দেয় নতুন উদ্যমে এগিয়ে যেতে। কেবল সাধারণ মানুষই নয়, সম্পর্কের এই নিকোটিনের আবির আছে পশ্চিমা মুলুকের শোবিজ অঙ্গনেও। তারা দুজনই মার্কিন গায়িকা সেলেনা গোমেজ ও পপসংগীত শিল্পী টেইলর সুইফট। টিনেজ এ তারকাদ্বয়ের বয়স খুব কাছাকাছি। একসঙ্গেই সংগীতাঙ্গনে পা রেখেছেন। খ্যাতিও দুজনের প্রায় সমান সমান। দুজন একে অপরের সাফল্য দেখে হিংসা করবেন, না, সেখানে উল্টো দুজনের মধ্যে কঠিন এক বন্ধুত্বের সম্পর্ক। অনেকটা 'গলায় গলায় পিরিত' যাকে বলে।

শুরু করা যাক টেইলর-গোমেজনামা। বয়সটা বেশি না সেলেনা গোমেজের। তবে আলোচনা-সমালোচনা একেবারেই কম যান না তিনি। গান গেয়ে ঠিক যতটা না কাঁপিয়েছেন, ঠিক ততটাই এক বৃদ্ধকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন বলে সমালোচিত হয়েছেন। তাতে কি? পুরো পৃথিবী একদিকে আর বন্ধু আরেক দিকে। সেটাই প্রমাণ করলেন সেলেনার সবচেয়ে প্রিয় বন্ধু গায়িকা টেইলর সুইফট। সমালোচনাকারীদের টুইট করে একহাত দিয়েছেন তিনি। সাফ জানিয়ে দিলেন, সেলেনাকে যারা অপছন্দ করছেন, তারা যেন টেইলরকেও অপছন্দ করেন। -এই না হলো বন্ধু!

সেলেনাও কম কিসের? সম্প্রতি মার্কিন একটি টেলিভিশন অনুষ্ঠানে বন্ধুত্ব নিয়ে কথা বলেন তিনি। বলেন, 'আমার কাছে বন্ধু মানে টেইলর সুইফট। এর বাইরে অন্য কাউকে ভাবতে পারি না। আমার যত সমস্যা হয়েছে, এই মেয়েটি আগলে রেখেছে।' এখানেই শেষ নয়। শেয়ার করেছেন আস্ত এক স্মৃতি।

'টেইলর সুইফটের সঙ্গে আমার একটি ভালো গল্প আছে- যখন ব্র্যাক-আপের কারণে কঠিন সময় পাড়ি দিচ্ছিলাম। এক রাতে সাড়ে ১০টায় সে আমার বাসায় এলো এবং আমার দরজায় টোকা দিল। আমি দরজা খুললে- সে আমাকে এত্ত গিফট দিল। তারপর বলল, 'চলো, তোমার কঠিন সময় নিয়ে কথা বলি।' আমিও পড়ে যাই কথার মায়ায়! কথায় কথায় এমন অবস্থা হলো, কঠিন মুহূর্তটির কথা ভুলেই গেলাম- যোগ করলেন সেলেনা।

বন্ধুত্বের সংজ্ঞা দিতে গিয়ে, টেইলর সুইফটও তাই। আটকে গেলেন সেলেনা গোমেজে। বললেন, 'সেলেনাই আমার একমাত্র কাছের বন্ধু। শুধু বন্ধুই নয়, একজন বিশ্বস্ত মানুষও বটে।'

সম্প্রতি সেলেনা ও টেইলরের বন্ধুত্বের ছয় বছর পূর্তি হয়েছে। তবে কতটা সময় হলো সেটা নিয়ে ভাবছেন না তারা। তাদের কাছে বন্ধুত্বটাই আসল। সময় নয়। এ নিয়ে টেইলর বলেন, 'আমরা একসঙ্গে বোনের মতো সময় কাটিয়েছি। মুখ খুলে সবকিছু শেয়ার করেছি। সেলেনা বন্ধুত্বের মূল্যায়ন করতে জানে।'

এখানেই শেষ নয়। সেলেনা টেইলরকে অক্ষরে অক্ষরে অনুকরণ করেন বলেও বিশ্ব মিডিয়ায় খবর আছে। তবে সেসব তুড়ি মেরে উড়িয়ে দিয়েই দুজনই বলেন, আমরা একে অপরের ভালো পরামর্শক। যখনই দেখি একজন খেই হারিয়ে ফেলছে, তখনই আরেকজন চিন্তিত হয়ে পড়ি। আপ্রাণ চেষ্টা করি কিভাবে প্রিয় বন্ধুটিকে রক্ষা করা যায়।

তবে এদের নিয়ে নেতিবাচক কথাও রয়েছে। অনেকেই মনে করেন জাস্টিন বিবারের সঙ্গে সেলেনার সম্পর্কের ইতি ঘটেছিল টেইলর সুইফটের জন্য। তবে সেসব নাকি উড়ো কথা। আদতে টেইলর এমন মানুষই নন বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন পপ গানের রাজকন্যা সেলেনা গোমেজ।

চলতি বছরের সবচেয়ে বেশি আয় করা তারকা টেইলর সুইফট। এ নিয়ে ঘরোয়াভাবে পার্টি দেন তিনি। সেই পার্টিতেও উপস্থিত ছিলেন সেলেনা গোমেজ। নেচে গেয়ে প্রিয় বন্ধুটিকে আনন্দই দিয়েছেন তিনি।

\হগোমেজের মতে, বন্ধু যদি টেইলরের মতই হয়, তবে একাধিক থাকলেও ক্ষতি কি?

\হপ্রেমিক বিবারের সঙ্গে ইদানীং সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না সেলেনার। তাই এই নিয়ে ইদানীং বেশ মনকষ্টে ভুগছেন তিনি। বন্ধুর এই দুর্দিনে তাই পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন টেইলর সুইফট। একই পথের যাত্রী বলে সুইফট নিজেও বুঝতে পারেন সেলিনার পাহাড়সম কষ্টের কথা। কিন্তু সেলিনাকে ভেঙে না পড়ে গানের দিকে মনোযোগ দেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এই না হলো বন্ধুত্ব।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে