logo
সোমবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৯, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  ছবি ঘোষ   ২৬ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

আইফোনের কিছু গুরুত্বপূণর্ দিক

আইফোনের কিছু গুরুত্বপূণর্ দিক
যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোনির্য়ার সানফ্রান্সিসকোতে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উন্মুক্ত করা হয় ফোনটি। উন্মুক্ত হওয়ার পরই ফোনটির ভালো-মন্দ নিয়ে চলছে নানা রকম গবেষণা। বেশ কিছু প্রযুক্তিবিষয়ক ওয়েবসাইট আইফোন ৭ ব্যবহার করে রিভিউ প্রকাশ করেছে। এর মধ্যে রয়েছে বিশ্বখ্যাত সাময়িকী টাইম। জেনে নিন টাইমের দৃষ্টিতে আইফোন ৭ ফোনটির ভালো-মন্দ।

আইফোন মুক্তির আগে থেকেই গুজব শোনা যাচ্ছিল, নতুন আইফোনের ডিজাইনে কোনো পরিবতর্ন আসবে না। সেই গুজবই সত্যি হয়েছে। আইফোন ৭ দেখতে আইফোন ৬এসের মতোই, পাথর্ক্য খুবই কম। নতুন দুটি রং যোগ করা হয়েছে বø্যাক ও জেট বø্যাক। দৃশ্যমান পরিবতর্ন যা ঘটেছে সেটি হলো, রিয়ার প্যানেল থেকে অ্যান্টেনা লাইন্স সরিয়ে ফেলা হয়েছে। সবচেয়ে বড় পরিবতর্ন হলো আইফোন ৭ থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে হেডফোন জ্যাক। এ ছাড়া নতুন আইফোনকে তৈরি করা হয়েছে পানি প্রতিরোধী হিসেবে। এক মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট রাখলেও আইফোন ৭ এবং আইফোন ৭ প্লাসের কোনো ক্ষতি হবে না। অথার্ৎ স্বল্প সময়ের জন্য বৃষ্টিতে ভিজলে বা পানিতে পড়ে গেলে ফোনটি নষ্ট হবে না।

নতুন আইফোনের ক্যামেরার বেশ প্রশংসা করেছে টাইম। আইফোন ৭-এর ক্যামেরায় তিনটি দিক খুব গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। কম আলোয় ভালো ছবি তোলা, কালার ক্যাপচার ও জুমিং। তবে জুমিং সুবিধাটা রয়েছে শুধু আইফোন প্লাস মডেলে। টাইমের রিভিউতে বলা হয়েছে, নতুন আইফোনের ক্যামেরা পুরনো যেকোনো আইফোনের ক্যামেরার থেকেই উন্নতমানের। যারা আইফোন দিয়ে ছবি তুলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন, আইফোন ৭ প্লাস মডেলটি তাদের বেশ ভালো লাগবে। কারণ, এই ফোনের ক্যামেরায় যোগ করা হয়েছে সেকেন্ড ক্যামেরা লেন্স ও জুমিং সুবিধা। কম আলোয় ভালো ছবি তোলার জন্য এই ফোনে দেয়া হয়েছে প্রশস্ত এফ/২.২ অ্যাপারচার ও চারটি এলইডি ফ্ল্যাশ। সেলফি তোলার জন্য রয়েছে ৭ মেগাপিক্সেলের ফ্রন্ট ক্যামেরা। রিয়ার ক্যামেরা ১২ মেগাপিক্সেলের।

আইফোন ৭ মডেলের ফোন ব্যবহার করা হয়েছে অ্যাপলের সবের্শষ প্রসেসর এ১০ ফিউশন। এ৯ চিপের তুলনায় যা ৪০ শতাংশ দ্রæত কাজ করতে পারবে। এই প্রসেসর যেন ঠিকভাবে কাজ করতে পারে, সে জন্য যোগ করা হয়েছে দীঘর্স্থায়ী ব্যাটারি। অ্যাপলের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, আইফোন ৭ ফোনটি একবার ফুল চাজর্ দিলে সেটি আইফোন ৬এসের তুলনায় অন্তত দুই ঘণ্টা বেশি সচল থাকবে। টাইমের রিভিউতে বলা হয়েছে, অ্যাপলের এই দাবি সত্যি। অন্যান্য ফোনের তুলনায় আইফোন ৭-এর ব্যাটারি লাইফ তুলনামূলক দীঘর্। হেডফোন জ্যাক সরিয়ে নিলেও আইফোন ৭ ও আইফোন ৭ প্লাস মডেলে যোগ করা হয়েছে স্টেরিও স্পিকারস।

টাইমের মতে আইফোন ৭-এর ভালো দিক : উন্নত ক্যামেরা, দীঘর্ ব্যাটারি লাইফ, দ্রæতগতির পারফরম্যান্স, ৩২ জিবি স্টোরেজ থেকে শুরু। চাজর্ হতে বেশি সময় লাগে, হেডফোন জ্যাক না থাকাটা বিরক্তিকর।

যারা বেশি পুরনো মডেলের আইফোন ব্যবহার করছেন এবং নতুন মডেল ব্যবহার করতে চাইছেন, তাদের জন্য ভালো হবে। এ ছাড়া মোবাইল ফটোগ্রাফিতে যাদের আগ্রহ আছে, তারাও কিনতে পারেন ফোনটি। বতর্মানে আইফোনের আরও নতুন নতুন ভাসর্ন মাকেের্ট রয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে