logo
বুধবার ২৬ জুন, ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬

  ছবি ঘোষ   ১৯ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটনের ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স

বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটনের ইলেকট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স
ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সের এক বিশাল বাজার রয়েছে বাংলাদেশে। দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এই বাজারের পরিধিও। তবে এই খাতটি আগে সম্পূণর্ আমদানিনিভর্র থাকলেও এখন দেশেই বিশ্বমানের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্সেস তৈরি করছে দেশের শীষর্স্থানীয় ইলেক্ট্রনিক্স ও ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন।

ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটি সারা দেশে সাশ্রয়ী মূল্যে ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স ক্রেতাদের হাতে পৌঁছে দিচ্ছে। তাদের চাহিদার কথা চিন্তা করে ঢাকা আন্তজাির্তক বাণিজ্যমেলাতেও ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স প্রদশর্ন ও বিক্রি করছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে শুধু মেলা প্যাভিলিয়ন থেকে ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য কিনলেই ছাড় পাবেন ক্রেতারা।

বাণিজ্যমেলায় ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের সমন্বয়ক মো. মোস্তফাজ্জামান সরকার জানান, মেলা উপলক্ষে দেশব্যাপী ডিজিটাল ক্যাম্পেইন সিজন-৪ চালু করেছে ওয়ালটন। পণ্য কিনে রেজিস্ট্রেশন করলেই ক্রেতারা পাবেন সবোর্চ্চ ১ লাখ টাকা পযর্ন্ত নিশ্চিত ক্যাশ ভাউচার। আরও পেতে পারেন মোটরসাইকেল, এয়ার কন্ডিশনার, ল্যাপটপ, ফ্রিজ, এলইডি টিভি, ওভেনসহ অসংখ্য পণ্য ফ্রি।

তিনি বলেন, মূলত মেলায় আমরা ব্যবসার কথা চিন্তা করে অংশগ্রহণ করিনি। ক্রেতাদের মধ্যে ওয়ালটন পণ্য পরিচিত করাই হচ্ছে মেলায় অংশগ্রহণের মূল লক্ষ্য। আর আমরা সবসময়েই ক্রেতাদের চাহিদা অনুযায়ী পণ্যের মান সঠিক রেখে কম দামে প্রযুক্তি পণ্য তৈরি করে আসছি। এরই ধারাবাহিকতায় ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স তৈরি ও বাজারজাত করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে ওয়ালটন প্যাভিলিয়নের ম্যানেজার শফিকুল আলম বলেন, ওয়ালটন মাইক্রো-টেক করপোরেশনে সবার্ধুনিক প্রযুক্তিতে তৈরি করা হচ্ছে এসব পণ্যগুলো। প্রচুর অথর্ বিনিয়োগ করে জামাির্ন, জাপান, তাইওয়ানের প্রযুক্তিগত সহায়তায় মেধাবী, দক্ষ প্রকৌশলী ও টেকনিশিয়ানরা তৈরি করছেন এসব পণ্য। মাননিয়ন্ত্রণে জিরো টলারেন্স নীতির অনুসরণ করে ইন্টারন্যাশনাল ইলেক্ট্রোটেকনিক্যাল কমিশনের (আইইসি) স্ট্যান্ডাডর্ অনুযায়ী ‘মেড ইন বাংলাদেশ’খ্যাত এসব পণ্য তৈরি হচ্ছে।

তিনি বলেন, বতর্মানে আমাদের ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যাপ্লায়েন্স পণ্যের মধ্যে ব্যাটারি, এলইডি লাইট, ফ্যান, সুইচ সকেট, স্মাটর্ সুইচ, হোল্ডার, ডিবি বক্স, মডেলের বেশ কয়েকটি পণ্য রয়েছে। এলইডি লাইট মডেলের পণ্যগুলোর মধ্যে বেশ জনপ্রিয় পণ্যগুলো হলোÑ এলইডি বাল্ব, টিউবলাইট, ডাবল টিউব ডেকরেটিভ লাইট, ডাউন লাইট, প্যানেল লাইট, এলইডি লাইট, সিলিং ফ্যান, ওয়াল ফ্যান, রিচাজের্বল ফ্যান, টেবিল ফ্যান, রিমোট কন্ট্রোল সিলিং ফ্যান ইত্যাদি।

স্মল সাইজ ব্যাটারির মধ্যে ডই৬৪৫০ঈ, ডই১২৪৫, ডই৬৪৫০, ডই৪৪০, ডই৬৪৫০ই, ডই৬৪৫০ঈ, ডই৬৭০, ডই১২৪৫, ডই১২৭৫সহ আর তিনটি মডেল। যা ২৮০ টাকা থেকে ১ হাজার ৮০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। মিডিয়াম সাইজ ব্যাটারির মধ্যে রয়েছে- চড়বিৎ গধংঃবৎ ড৬উতগ৯৫, ড৬উতগ৭৫, ড৬উতগ৯৫ মডেল। যার মূল্য ৪ হাজার ৫৭৫ টাকা থেকে ৫ হাজার ৮০০ টাকা।

এদিকে, সুইচ সকেটের মধ্যে রয়েছে, ড১ ঝবৎরবং, অ৮ ঝবৎরবং, ঊ৪ ঝবৎরবং, চ১ ঝবৎরবং, ঝ৩ ঝবৎরবং, ঠ৮ ঝবৎরবং ইত্যাদি। অপপবংংড়ৎরবং, উই ইড়ী সিরিজের পণ্যসামগ্রী। এর মধ্যে ড১ ঝবৎরবং পণ্যগুলো হলো- ওয়ান গ্যাং সুইচ, ২ গ্যাং সুইচ, ৩ গ্যাং সুইচ, ৪ গ্যাং সুইচ, ৫ গ্যাং সুইচ, কলিং বেল সুইচ, কমিউনিকেশন সকেট, ডিমার, সকেট, ইউএসবি সকেট, ডিপি সুইচ।

অ৮ ঝবৎরবং এর পণ্যগুলো হল- ওয়ান গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), ২ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), ৩ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), ৪ গ্যাং সুইচ (ওয়ান ওয়ে অ্যান্ড টু ওয়ে), কলিং বেল সুইচ, কমিউনিকেশন সকেট, ডিমার, সকেট, বø্যাঙ্ক প্লেট, ইউএসবি সকেট, টাইপ সকেট, ডিপি সুইচ এবং ঊ৪ ঝবৎরবং, চ১ ঝবৎরবং আকষর্ণীয় মডেলের ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য।

ঝ৩ ঝবৎরবং ৩০টি ও ঠ৮ ঝবৎরবং মধ্যেও রয়েছে ৩০টি মডেলের ইলেক্ট্রিক্যাল পণ্য। ঝসধৎঃ ঝরিঃপয-এর মধ্যে রয়েছে- রিমোটর্ কন্ট্রোল সুইচ। অপপবংংড়ৎরবং-এর মধ্যে রয়েছে- ফ্যান রেগুলেটর, বাল্ব হোল্ডার, সিলিং রোজ ইত্যাদি। উই ইড়ী এর মধ্যে রয়েছে- ডউই-৮ডঞচ-৬৩অ, ঝচ-১ড৩২ঈ, ডউই-চজওগঊ-ঝচ-১ড৩২ঈ, ঞচ-৩ড৬৩ঈ, ডউই-চজওগঊ-ঞচ-৩ড৬৩ঈ, ডউই-৩ঞচ-৯ও ইত্যাদি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে