logo
রোববার ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

  শামীমা জান্নাত   ০৫ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

ডিজিটাল বিপণনে গতিশীলতা এসেছে

ডিজিটাল বিপণনে গতিশীলতা এসেছে
ডিজিটাল মাকেির্টং অ্যাওয়াডের্র দ্বিতীয় আসরে দেশের ৭৮টি ডিজিটাল ক্যাম্পেইনকে সম্প্রতি একটি জমকালো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে পুরস্কৃত করা হয়। বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের উদ্যোগে আয়োজিত এ ডিজিটাল মাকেির্টং অ্যাওয়াডের্র পরিবেশনায় ছিল মেঘনা গ্রæপ অব ইন্ডাস্ট্রিজ। ওই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল প্রায় ৫০০ ডিজিটাল প্রফেশনাল। মোট ১৬টি ক্যাটাগরির অধীনে গ্র্যান্ড প্রি, গোল্ড এবং সিলভার এই ৩টি র‌্যাংকে এ বছরের শ্রেষ্ঠ ডিজিটাল ক্যাম্পেইনগুলোকে পুরস্কৃত করা হয়। কন্টেন্ট ম্যাটারসের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং ডেইলি স্টারের সহযোগিতায় সংগঠিত এ অনুষ্ঠানটি সম্প্রতি ঢাকার হোটেল লে মেরিডিয়ানে অনুষ্ঠিত হয়।

ডিজিটাল মাকেির্টং অ্যাওয়াডর্ দেশের ডিজিটাল উদ্যোগগুলোকে সম্মাননা প্রদানের জন্য একমাত্র প্লাটফমর্। এ বছর অ্যাওয়াডের্র জন্য মোট ৪৫৬টি মনোনয়নপত্র জমা পড়ে। ৪টি বিচারক প্যানেল এদের মধ্যে ২০২টি কাজকে প্রাথমিকভাবে বাছাই করেন এবং আরও ৪টি বিচারক প্যানেল এদের মধ্য থেকে বের করে আনেন ৭৮ চ‚ড়ান্ত বিজয়ীকে। অ্যাওয়াডির্টতে ছিল ১৬টি গ্র্যান্ড প্রি অ্যাওয়াডর্, ৩৯টি গোল্ড অ্যাওয়াডর্ এবং ২৩টি সিলভার অ্যাওয়াডর্।

অ্যানালাইজেন এবং মাইন্ডশেয়ার তাদের লাক্স সুপার স্টার ২০১৮ ক্যাম্পেইনের জন্য সেরা ইন্টিগ্রেটেড ডিজিটাল ক্যাম্পেইন ক্যাটাগরির অধীনে গ্র্যান্ড প্রি র‌্যাংকে অ্যাওয়াডর্ জিতে নেয়। এই ক্যাম্পেইনটি আলাদা আরও দুটো ক্যাটাগরিতে গোল্ড জিতে নেয়।

৪টি গোল্ড অ্যাওয়াডর্ পেয়ে সবচেয়ে বেশি অ্যাওয়াডর্ জিতে নেয় এক্স তাদের রবি বিজয় ইতিহাস ক্যাম্পেইনের জন্য। এ ছাড়া গ্রে বাংলাদেশ তাদের কোকা-কোলা নিখেঁাজ শব্দের খেঁাজে ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে জিতে নেয় ৩টি গোল্ড অ্যাওয়াডর্, যা ছিল লাক্স সুপার স্টার ২০১৮ ক্যাম্পেইনটির মতোই একটি ক্যাম্পেইনের সবোর্চ্চ পুরস্কারপ্রাপ্তের মধ্যে দ্বিতীয়স্থান লাভকারী।

সবচেয়ে বেশিসংখ্যক পুরস্কার অজর্নকারী এজেন্সি ছিল অ্যানালাইজেন। তারা পৃথকভাবে ১৫টি অ্যাওয়াডর্ এবং মাইন্ডশেয়ারের সঙ্গে যৌথভাবে আরও ৩টি অ্যাওয়াডর্ জিততে সক্ষম হয়। স্টারকম বাংলাদেশ তাদের ‘জাকাত ক্যালকুলেটর’-এর জন্য বেস্ট ইউজ অব ডিসপ্লে ক্যাটাগরিতে দুটি ‘গোল্ড অ্যাওয়াডর্’ জিতে নেয়।

জমকালো এই পুরস্কার অনুষ্ঠানের পরে সেখানে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয় পঞ্চম ডিজিটাল মাকেির্টং সামিট। ২০১৪ সাল থেকে শুরু হওয়া এ সম্মেলনটি দেশের ডিজিটাল মাকেির্টং প্রফেশনালদের তথ্য ও অভিজ্ঞতা বিনিময়ের জন্য সবোর্চ্চ প্লাটফমর্ হিসেবে সবর্জনবিদিত।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা এবং ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরিফুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘ডিজিটাল ধারণার মাধ্যমে আমরা এখন যে কোনো ব্র্যান্ডকে ভাঙতে বা গড়তে পারি। আমরা বতর্মানে একটি বিস্তৃত ডিজিটাল ইকোসিস্টেমের পৃষ্ঠভাগে দঁাড়িয়ে আছি। এই সম্মেলনের মাধ্যমে আমরা বিশ্বব্যাপী প্রচলিত বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরার এবং প্রত্যেকের মধ্যে কিছু প্রশ্ন উত্থাপন করার চেষ্টা করছি যা এই নতুন ধারণার সঙ্গে খাপ খাওয়ানোর একমাত্র উপায়।’

আরও বক্তব্য রাখেন মেঘনা গ্রæপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের ব্র্যান্ডের জেনারেল ম্যানেজার মো. মহিউদ্দিন।

ডিজিটাল মাকেির্টং সামিটের এই ৫ম আসরে উপস্থিত ছিলেন আন্তজাির্তক ৫ জন বিশিষ্ট বক্তা, যারা ডিজিটাল মাকেির্টং ক্ষেত্রের গুরুত্বপূণর্ বিষয়গুলোতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। এ ছাড়া আলোচনার আসরে ছিলেন ২২ জন দেশীয় বিশেষজ্ঞ যারা দেশের ডিজিটাল মাকেির্টং বতর্মান পরিস্থিতি ও ভবিষ্যৎ রূপরেখার ওপর আলোকপাত করেন। একাধিক প্যানেল আলোচনা, ব্রেকআউট সেশন, ইনসাইট সেশন এবং কেইস স্টাডি প্রেজেন্টেশন সেশনগুলো সামিটের পুরো পরিবেশকে একটি একদিনের পাঠশালার রূপ প্রদান করে। দেশের গণ্যমান্য ডিজিটাল মাকেির্টং বিশেষজ্ঞরা আলোচনাগুলোয় অংশগ্রহণ করেন এবং তাদের আলোচিত বিষয়বস্তুগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিলÑ কীভাবে একটি কাযর্কর ডিজিটাল কৌশল প্রণয়ন করা যায়, ডিজিটাল বিজ্ঞাপন খাতে বাজেট তৈরি, ক্রমবধর্মান ডিজিটাল গ্রাহক ও তাদের সঙ্গে সুষ্ঠু যোগাযোগ স্থাপন প্রক্রিয়াসহ আরও অনেক কিছু।

সম্মেলনে কিনোট উপস্থাপন করেন যুক্তরাজ্যের দ্য নাম্বার ওয়ান এজেন্সির প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক উবাহ বাটলার; ফিলিপাইনের ডেন্টসু এজিস নেটওয়াকের্র কান্ট্রি সিইও ড. ডোনাল্ড প্যাট্রিক লিম; নিভিয়া ইন্ডিয়া প্রা. লি.-এর এক্সপোটর্স অ্যান্ড ই-কমাসের্র বাণিজ্যিক পরিচালক যোগেশ শ্রফ; স্পাইরাল কন্টেন্ট সলিউশন্সের (স্ক্যাটার) প্রতিষ্ঠাতা ও নিবার্হী কমর্কতার্ রাজন শ্রীনিবাসন এবং নিয়েলসেন ইন্ডিয়ার নিবার্হী পরিচালক ডলি ঝা।

বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম কতৃর্ক আয়োজিত, মেঘনা গ্রæপ অব ইন্ডাস্ট্রিজের পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত এ আয়োজনটির পৃষ্ঠপোষকতায় ছিল কন্টেন্ট ম্যাটারস এবং সহযোগিতায় ছিল দ্য ডেইলি স্টার। অনুষ্ঠানের সমথের্ন ছিল এস্কিমি; স্ট্র্যাটেজিক পাটর্নার বাংলাদেশ ক্রিয়েটিভ ফোরাম ও নথর্ সাউথ ইউনিভাসিির্টর অ্যাসোসিয়েশন ফর ইনফরমেশন সিস্টেম; নলেজ পাটর্নার এমএসবি; ইভেন্ট পাটর্নার লে মেরিডিয়েন ঢাকা; টিভি পাটর্নার জিটিভি; পিআর পাটর্নার ব্যাকপেজ পিআর; রেডিও পাটর্নার রেডিও টুডে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে