logo
সোমবার ২৬ আগস্ট, ২০১৯, ১১ ভাদ্র ১৪২৬

  শামীমা জান্নাত   ২২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

কমিউনিকেশনে আটিির্ফশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের প্র্রভাব

কমিউনিকেশনে আটিির্ফশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের প্র্রভাব
সম্প্রতি তাইপে ‘২০১৮ ডিজি এশিয়া’ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এই সম্মেলনে সংযুক্ত ছিল বৃহত্তম ফোরাম ও স্টাটর্-আপ এক্সিবিশন ‘মিট তাইপে’ এবং এখানে প্র্রায় ৭০,০০০ অংশগ্রহণকারী তাইওয়ান ও বহিবির্শ্ব থেকে অংশগ্রহণ করেন। এই অনুষ্ঠানটি ছিল একটি ‘এশিয়ান আটিির্ফশিয়াল ইন্টেলিজেন্স সামিট।’ এই অনুষ্ঠানে সমগ্র বিশ্ব থেকে আগত ৩০ জন নেতৃস্থানীয় বক্তা সৃজনশীলতা, মিডিয়া, প্র্রযুক্তি এবং ব্যবসাবাণিজ্যের ওপর ভবিষ্যতে এই আটিির্ফশিয়াল ইন্টেলিজেন্স তথা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রভাব নিয়ে তাদের পযের্বক্ষণসমূহ শেয়ার করেন। ২০১৪ থেকে শুরু হওয়া এই ‘ডিজিএশিয়া’ এশিয়া মহাদেশের সবচাইতে আইকনিক ডিজিটাল কংগ্রেসগুলোর অন্যতমÑ যা ‘এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং অ্যাসোসিয়েশন (এএফএএ)’-এর তত্ত¡াবধানে ‘তাইপে অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং এজেন্সি (টিএএএ)’ দ্বারা বাৎসরিকভাবে অনুষ্ঠিত হয়।

‘২০১৮ ডিজি এশিয়া’র বিষয় ছিল “এক্সপেরিয়েন্স এ আই”; যেখানে ‘ব্যবসাবাণিজ্যে এ আই’, ‘মিডিয়ায় এ আই’, ‘টেকনোলজিতে এ আই’ এবং ‘ক্রিয়েটিভিটিতে এ আই’য়ের প্রভাব নিয়ে গভীরভাবে আলোচনা ও বিশ্লেষণ করা হয়।

রেইমন্ড সো, চেয়ারম্যান, এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং অ্যাসোসিয়েশন (এ এফ এ এ) বলেন, “আমরা এ বছর “মিট তাইপে”র সঙ্গে যুক্ত হয়ে ফরম্যাট ও কন্টেন্ট-এ উল্লেখযোগ্য পরিবতর্ন এনেছি”। তিনি আরো বললেন, ‘ডিজি এশিয়া-২০১৮’- এর বিষয় হলো যোগাযোগ, সৃজনশীলতা এবং ব্যবসাবাণিজ্যের ওপর কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার প্রভাব নিয়ে বিশ্লেষণ করা যা আমাদের ব্যবসাবাণিজ্যেও ভবিষ্যতে পরিবতর্ন আনবে।”

তিনি আরও বলেন, আগামী ত্রিশ বছরে এই কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা আমাদের জীবনের সবের্ক্ষত্রে ব্যবহার করা হবে এবং এটা এত দ্রæত অগ্রগামী হবে যে, কেউই একে অগ্রাহ্য করতে পারবে না। যদি যোগাযোগ ব্যবস্থার কমীর্রা এসব নতুন প্রযুক্তি ও অ্যাপ্লিকেশন বুঝতে বা অনুসরণ করতে না পারেন তবে আমরা সবাই-ই ভবিষ্যতে বিপদগ্রস্ত হব।”

‘এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং অ্যাসোসিয়েশন (এ এফ এ এ)-এর মূল উদ্দেশ্যগুলোর একটি হচ্ছে এশিয়ান ডিজিটাল প্রফেশনালদের জন্য একটি প্ল্যাটফমর্ ও ফোরাম করে দেয়াÑ যাতে করে তারা এই শিল্পের অগ্রগতিতে একসঙ্গে কাজ করতে পারে। ‘এ এফ এ এ’ ডিজিএশিয়াকে ডিজিটাল কমিউনিকেশন প্রফেশনালদের জন্য সবচাইতে ভালো প্ল্যাটফমর্ হিসেবে তৈরি করতে কাজ করে যাবে। এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল, বিবিধ শিল্পের অনুরূপ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বহুদিক থেকে বৈচিত্র্যময়।

বিগত ৩৫ বছরে ‘এ এফ এ এ’ এশিয়া প্যাসিফিক দেশগুলোর বিজ্ঞাপন, বিপণন ও মিডিয়া পেশাদারদের বিভিন্ন মিল ও পাথর্ক্য সংবলিত বৃহত্তর বোধশক্তি ও উপলব্ধি তুলে ধরতে একটি গুরুত্বপূণর্ ভ‚মিকা পালন করেছে।

ডিজি এশিয়া একটি ডিজিটাল বিপণন কংগ্রেস যা এশিয়ান ফেডারেশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং অ্যাসোসিয়েশন (এ এফ এ এ)- এর দ্বারা সংগঠিত। “ তাইপে অ্যাসোসিয়েশন অব অ্যাডভাটার্ইজিং এজেন্সি (টি এ এ এ)” হলো এই অনুষ্ঠানের আয়োজক, যে অনুষ্ঠানটি ২০১৪ থেকে শুরু হওয়ার পর তাইওয়ানে প্রতি দুবছরে একবার অনুষ্ঠিত হয়। ডিজি এশিয়ার লক্ষ্য হলো ফোরাম হিসেবে পৃথিবী জুড়ে সব প্রতিভাকে সংযুক্ত করে বিশ্বের বৃহত্তম ডিজিটাল ইনোভেশন প্লাটফমর্ তৈরি করা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে