logo
বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৫

  মুনমুন সাহা   ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ঘুমের আগে একটু যত্ন

ঘুমের আগে একটু যত্ন
ছবি : ইয়াসমিন সুলতানা ফাতেমা
এখন দিনগুলো এমনিতেই অনেক রুক্ষ। তার ওপর আর্দ্রতাহীন শুষ্ক হাওয়া ত্বককে করে দিচ্ছে নির্জীব আর নিষ্প্রাণ। এদিকে যারা সারাদিন অফিস করেন তাদের তো দিন শেষে ক্লান্ত ত্বকের যত্ন নেয়াটাই বেশ কঠিন হয়ে পড়ে। তবে ত্বকে ধুলোবালি নিয়ে রাতে হুট করে ঘুমিয়ে পড়লে পরদিন সকালে আরও মলিন দেখায় ত্বক। তাই সারা দিন পরিশ্রমের পর ঘুমের আগে অল্প একটু সময় বরাদ্দ রাখুন নিজের জন্য। যত্ন নিন নিজের। ত্বকের যত্নের অভ্যাসগুলো রপ্ত করে ফেললে রোজকার জীবনে এই কাজগুলোকে বাড়তি ঝামেলা বলে মনে হবে না। আর নিয়মিত এমন সু-অভ্যাস বজায় রাখলে ত্বক সুস্থ রাখতে গিয়ে খুব একটা ঝক্কিতে পড়তে হবে না।

টাচ বাই ফাতেমার স্বত্বাধিকারী এবং স্বনামধন্য মেকাপশিল্পী ইয়াসমিন সুলতানা ফাতেমা জানালেন সে সব সু-অভ্যাসের কথা-

রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই ত্বক পরিষ্কার করে নেওয়া প্রয়োজন বলে জানালেন তিনি। ত্বক পরিষ্কার করার জন্য প্রথমে অলিভ অয়েল বা বেবি অয়েল দিয়ে মুখ ভালো করে ম্যাসাজ করে নিতে হবে। এরপর কুসুম গরম পানিতে কাপড় ভিজিয়ে মুখটা মুছে ফেলুন। পরে ভালো কোনো ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

মুখ ধোয়ার পর অবশ্যই ত্বকের আর্দ্রতা নিশ্চিত করুন। ময়েশ্চারাইজার কিংবা ময়েশ্চারাইজিং নাইট ক্রিম ব্যবহার করা যেতে পারে। ত্বক তৈলাক্ত প্রকৃতির না হলে এসবের পরিবর্তে অলিভ অয়েলও ব্যবহার করতে পারেন। সমপরিমাণ অলিভ অয়েল ও পানি একসঙ্গে নিয়ে আঙুলের সাহায্যে ভালোভাবে মিশিয়ে এরপর মিশ্রণটি মুখে লাগিয়ে নিন। ময়েশ্চারাইজার হিসেবে যে সামগ্রীই ব্যবহার করুন না কেন, তা ভালোভাবে পুরো মুখে ম্যাসাজ করে ঘুমান। সকালে পাবেন প্রাণবন্ত ত্বক।

যারা সারা দিন নিজের যত্ন নেওয়ার সময় পান না, তারা অবশ্য তেল দিয়ে মুখের ত্বক পরিষ্কার করার পর সপ্তাহে ১-২ দিন ফেসপ্যাক ব্যবহার করতে পারেন। পাকা কলা, পাকা পেঁপে ও ময়দা একসঙ্গে মিশিয়ে নিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন ১০-১৫ মিনিট। এরপর কুসুম গরম পানিতে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

ফেসওয়াস দিয়ে মুখ ধোয়ার পর একটি গুরুত্বপূর্ণ ধাপ হচ্ছে টোনার। ফেসওয়াশ দিয়েও মুখ ধোয়ার পরেও মুখে অনেক অদৃশ্য ও প্রখর ময়লা ও ধুলোবালু থেকে থাকে। টোনার মূলত ব্যবহার করা হয় সেই সব ধুলোবালু প্রতিরোধ করার জন্য।

হাত-পায়ের যত্নে

বাইরে থেকে ফিরে কুসুম গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে সেই পানিতে হাত-পা ভিজিয়ে রাখুন ১০-১৫ মিনিটের জন্য। এরপর নরম ব্রাশে শ্যাম্পু লাগিয়ে হালকা করে ঘষে মরা চামড়া তুলে ফেলুন। ফেটে যাওয়ার মাত্রার ওপর নির্ভর করছে সপ্তাহে কদিন এভাবে যত্ন নিতে হবে। হাত-পায়ের ত্বক অতিরিক্ত ফেটে গিয়ে থাকলে প্রতিদিনই এভাবে যত্ন নিন। নইলে সপ্তাহে ২-৩ দিন যত্ন নিলেও চলবে। অলিভ অয়েল কিংবা লেবুর রসের সঙ্গে সমপরিমাণ চিনি মিশিয়ে নিয়ে স্ক্র্যাব তৈরি করতে পারেন। ২-৩ দিন পরপর হাত-পা স্ক্র্যাব করুন। রাতে ঘুমানোর আগে হাতে-পায়ে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। চাইলে অয়েল ম্যাসাজ করতে পারেন। ময়েশ্চারাইজার হিসেবে যে কোনো বডি অয়েল বেছে নেওয়া যায়। বাড়তি আর্দ্রতার জন্য নারকেল তেলও বেছে নিতে পারেন। সকালে হাত-পা ধুয়ে ফেলুন। গোড়ালি ফাটা রোধে ঘুমাতে যাওয়ার আগে পা ধুয়ে ভ্যাসলিন ও লেবুর রসের মিশ্রণ ভালোভাবে গোড়ালিতে লাগিয়ে নিন। এরপর মোজা পরে ঘুমান। সকালে পা ধুয়ে আলতো করে মুছে নিন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে