logo
বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৫

  অনলাইন ডেস্ক    ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ফাগুন দিনের ভালোবাসা

বসন্ত মানেই গাছে গাছে নতুন ফুল, সবুজ কচিপাতা, পাখির সুর, সব মিলিয়ে প্রকৃতির নতুন মুখ। তাই বাসন্তী রঙা বসনে নগরবাসী ঠিকই বরণ করে রঙিন বসন্তকে। তার ওপর একইদিনে পালিত হবে ভালোবাসা দিবস। আসছে ১৪ ফেব্রম্নয়ারি পহেলা ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবস মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে লাল আর হলুদ রঙের ছোঁয়ায়।

ফাগুন দিনের ভালোবাসা
ফাল্গুনের প্রথম দিনের হাত ধরেই ঋতুরাজ বসন্তের আগমন। বসন্ত মানেই গাছে গাছে নতুন ফুল, নতুন সবুজ কচিপাতা, পাখির সুর, সবমিলিয়ে প্রকৃতির নতুন মুখ। তাই বাসন্তী রঙা বসনে নগরবাসী ঠিকই বরণ করে রঙিন বসন্তকে। তার ওপর একই দিনে পালিত হবে ভালোবাসা দিবস। আসছে ১৪ ফেব্রম্নয়ারি পহেলা ফাল্গুন আর ভালোবাসা দিবস মিলেমিশে একাকার হয়ে যাবে লাল আর হলুদ রঙের ছোঁয়ায়।

ফাল্গুনের দিনে পোশাকে থাকে রঙের বিচিত্রতা। শাড়ি, সালোয়ার কামিজ, ফতুয়া, ফ্রক যে যাই পরুক না কেন তাতে থাকে হলুদ, বাসন্তী কিংবা লাল রঙের ছোঁয়া। শুধু নারী নয়, পুরুষের শার্ট, পাঞ্জাবি বা ফতুয়ার ক্ষেত্রেই একই ব্যাপার কাজ করে। আজকাল সব বয়সীরাই পোশাক-সাজ নিয়ে বেশ সচেতন। তাদের এ সচেতনতাকে কেন্দ্র করেই দিন দিন গড়ে উঠছে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলো। ভিন্ন ভিন্ন রুচির কথা মাথায় রেখেই তৈরি হচ্ছে নানা রঙের, নানা ডিজাইনের পোশাক। আরও আছে কাঠ, মাটি, মেটাল, পাথর, বাঁশ ইত্যাদি দিয়ে তৈরি চুড়ি, কানের দুল, গলার মালা ইত্যাদি।

বসন্ত ও ভালোবাসা দিবস হাত ধরাধরি করে আসার কারণে এবার শাড়িতে থাকবে তাই উৎসবের আমেজ। যেমন একরঙা হলুদ শাড়ির পাড়জুড়ে বসিয়ে নেওয়া যেতে পারে গোলাপি, গাঢ় নীল আর জরির পাড়। আঁচলজুড়ে থাকতে পারে কলকার নকশায় অ্যামব্রয়ডারির কাজ। জমিনটা একরকম আবার আঁচলটা অন্যরকম, এমন শাড়ি দেখা যাবে এবারের বসন্তে। এ ধরনের শাড়িতে হ্যান্ড পেইন্ট মানিয়ে যায় বেশ।

নগরদোলা, অঞ্জন'স, কে-ক্র্যাফট, বিবিয়ানা, সাদাকালো, নিপুণ, দেশাল ও বাংলার মেলা পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষে এনেছে বাহারি সব রং ও নকশার পোশাক। এসব পোশাকের রঙে প্রাধান্য পেয়েছে হলুদ রং ও বসন্তের নানা রঙের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। এ ছাড়া ফ্যাশন হাউস নবরূপা, অন্যমেলা, নিত্য উপহার, কারুপলস্নী মেঘসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউস পহেলা ফাল্গুন উপলক্ষে পোশাক এনেছে। দেশীয় পণ্যের প্রতিষ্ঠান আড়ং বরাবরের মতো এবারও পহেলা ফাল্গুনে নানা রং ও নকশার পোশাক এনেছে।

ফাল্গুনের শাড়ির দাম পড়বে ১ হাজার ২৫০ থেকে ৪ হাজার ৫০০, সালোয়ার-কামিজ ১ হাজার ৫০০ থেকে ৩ হাজার ৫০০, ফতুয়া ৭৫০ থেকে ১ হাজার ৫০০, পাঞ্জাবি ১ হাজার ২৫০ থেকে ৩ হাজার ৫০০, ফতুয়া ৭৫০ থেকে ১ হাজার ২৫০ এবং শিশুদের পোশাক ৭০০ থেকে ১ হাজার ২৫০ টাকা।

ফাল্গুনের এসব পোশাক পাওয়া যাবে বসুন্ধরা সিটি তেজগাঁও লিংক রোডের দেশিদশে, শাহবাগের আজিজ মার্কেটে, ধানমন্ডির বিভিন্ন মার্কেটসহ বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসে।

এ ছাড়া ভালোবাসা দিবসে লালের প্রাধান্যে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসগুলো এ উপলক্ষে বাজারে এনেছে শাড়ি, সালোয়ার কামিজ, ফতুয়া, পাঞ্জাবি ও শিশুদের পোশাক। অনেক ফ্যাশন হাউস একই রং ও নকশার পোশাক এনেছে কাপলদের জন্য। আবার অনেক ফ্যাশন হাউস কাপলদের সঙ্গে মিল রেখে শিশুদের জন্যও পোশাক এনেছে। অর্থাৎ পরিবারের সবার জন্যই একই রং ও নকশার পোশাক কেনা যাবে অনেক ফ্যাশন হাউস থেকে।

বসন্তের সাজে মেকআপ খুব গাঢ় নয়, হালকা করে সাজতে হবে। কারণ দিনের রোদে মেকআপ নষ্ট হয়ে যেতে পারে। মেকআপ নেয়ার আগে মুখমন্ডলটাকে মেকআপ উপযোগী করে তুলতে ভালোভাবে ক্লিনজিং করে নিন। এবার ময়েশ্চারাইজিং ক্রিম লাগিয়ে নিন। ১০ মিনিট পর ফাউন্ডেশনের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা পানি মিশিয়ে মুখমন্ডলে লাগিয়ে নিন। ফাউন্ডেশন মসৃণভাবে ত্বকে মিশিয়ে নিন। তারপর হালকা ফেসপাউডার বুলিয়ে নিন। ত্বকের রঙের সঙ্গে মিলিয়ে শেড নির্বাচন করুন। এবার চোখ দুটিকে সাজিয়ে নিন একটু গাঢ় করে মাসকারা, আইলাইনার, কাজল আর হালকা আইশ্যাডো দিয়ে। অবশেষে লিপস্টিক আর কপালে একটি লাল রঙের বড় টিপ। হালকা লিপগস্নস বুলিয়ে নিতে পারেন ঠোঁটে। লিপলাইনার একটু গাঢ় রঙের বেছে নিন। সঙ্গে খোঁপায় গুঁজে দিতে পারেন পমপম, জারবারা বা লাল গাঁদা ফুল। আবার যারা অফিস করবেন তারা পরতে পারেন চিকন পাড়ের তাঁতের শাড়ি। উৎসবের আমেজ চাইলে রংচঙে বস্নাউজ বেছে নিন। গলায় পরবেন কাঠ-পুঁতি দিয়ে তৈরি মালা। এমনই উজ্জ্বল রঙে সেজে উঠতে পারেন আপনিও। চুলে গাঁদা ফুল। হালকা সাজ। সঙ্গে একটা ছোট্ট টিপ পরে ফেলুন।

ফাগুনের প্রথম দিনে সারা দিনের জন্য বের হলে হাইহিল এড়িয়ে আরামদায়ক স্যান্ডেল পরুন। অল্প উঁচু বা ফ্লাড স্যান্ডেল পরলেই হাঁটতে সুবিধা হবে। বেরোনোর আগে প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস সঙ্গে নিন।

পানির বোতল, ছাতা, টিসু্য পেপার সঙ্গে রাখা চাই। পাশাপাশি লিপস্টিক, কম্প্যাক্ট পাউডার আর চিরুনিও গুছিয়ে নিন যেন প্রয়োজনে ব্যবহার করা যায়। সঙ্গে রাখা চাই ছোট একটি আয়নাও। ঘর থেকে বের হওয়ার আগে ছিটিয়ে নিন সুগন্ধি। এরপর সারা দিন প্রিয়জনদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ান ফাগুনের সাজে। আনন্দ আর ভালোবাসায় রাঙিয়ে তুলুন ফাগুনের প্রথম দিনটি।

রঙ বেরঙ ডেস্ক
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে