logo
রোববার ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে

কথাটি একেবারে সত্যি। যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে! রান্না এখন আর রান্নাঘরে সীমাবদ্ধ নেই। চমৎকার একটি স্থান দখল করে বিশ্বে ইন্টারন্যাশনাল কুইজিন বলে একটা দারুণ শিল্প ও বাণিজ্য পরিচালিত হচ্ছে। বাংলাদেশের রসনাও এখন বিশ্বদরবারে মাথা উঁচু করে আছে। বিশ্বের অনেক দেশে বাংলাদেশের হেঁশেলঘর জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বাংলাদেশেও বিদেশিরা বেড়াতে এলে বেশ কদর করে আমাদের দেশি রান্নাগুলো চেখে দেখেন। সবচেয়ে বড় কথা, আধুনিক প্রযুক্তি ও ইন্টারনেট সেবার যুগে নারীরা অনলাইনেই ক্যাটারিং বিজনেস এবং ফুড সাপস্নাই চেইন তৈরি করে রীতিমত বিপস্নব তৈরি করেছেন বিগত কয়েক বছরে। আজ রান্না নিয়েই কথা হবে বাংলাদেশের স্বনামধন্য দুজন রন্ধনশিল্পী আফরোজা নাজনীন সুমি এবং শাহনাজ ইসলামের সঙ্গে।

যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে
আফরোজা নাজনীন সুমি

পরিশ্রমী এক রন্ধনশিল্পী, টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে রান্নার অনুষ্ঠানের পরিচিতমুখ আফরোজা নাজনীন সুমি। নিজ হাতে সংসার চালানোর পাশাপাশি ব্যস্ত থাকেন নিত্যনতুন রান্নার আয়োজন নিয়ে। ইতোমধ্যে দেশ-বিদেশ থেকে পেয়েছেন অনেক সম্মাননা। দেশের দৈনিক পত্রিকা প্রথম আলো, নিউ এইজ ও প্রায় সবগুলো লাইফ স্টাইল ও ফুড ম্যাগাজিনের জন্য নিয়মিত রেসিপি লিখেন। নিজে বাসায় রান্না করে সে রেসিপির ফটোশু্যটও সাধারণত নিজে করেন (কিছু ব্যতিক্রম ছাড়া)। আফরোজা নাজনীনের রান্নার শুরু হয়েছিল মায়ের কাছ থেকে। শৈশব থেকে নিজেও রান্না করতে ভালোবাসতেন। বাসায় অতিথি এলে তাদের নানা ধরনের রান্না করে খাওয়াতেন। রান্না ভালো লাগায় সুনাম করতেন অতিথিরা। চার বছর আগে একদিন যমুনা টেলিভিশন থেকে ডাক আসে। তাদের "লাইভ কিচেন" প্রোগ্রাম দিয়ে যাত্রা শুরু হয় টেলিভিশন প্রোগ্রাম। ভিন্ন ধরনের রেসিপি নিয়ে তার "কুইক রেসিপি" অনুষ্ঠানটি দ্রম্নতই জনপ্রিয়তা নিয়ে আসে। ইতোমধ্যে এটিএন বাংলা, জিটিভি, সময়, চ্যানেল নাইন, নিউজ২৪, মাছরাঙ্গা, এনটিভি, বাংলাভিশন, চ্যানেল টুয়েন্টিফোর, নাগরিক টিভি, বিটিভি, বিটিভি ওয়ার্ল্ড, ডিবিসি প্রভৃতি চ্যানেলে রান্নার অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন প্রোগ্রামে অতিথি হিসেবে থাকছেন। হঠাৎ করেই বছর তিনেক আগে এটিএন বাংলা থেকে উপস্থাপনার ডাক আসে। এরপর থেকে নিয়মিত এটিএন বাংলার "বাহারি রান্না" অনুষ্ঠানে উপস্থাপক হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। রন্ধনশিল্পে অবদানের জন্য কলকাতায় ভারত বাংলাদেশ মৈত্রি সম্মাননা-২০১৮ ও বারসাতে তাকে সৃজন সম্মান-২০১৮ পুরস্কার প্রদান করা হয়। এ ছাড়া তার উলেস্নখযোগ্য অর্জন হলো বাবিসাস অ্যাওয়ার্ড-২০১৮, ডি সি আর ইউ অ্যাওয়ার্ড-২০১৮, ১০ম এজেএফবি স্টার অ্যাওয়ার্ড- ২০১৭, রেডিও স্বদেশ সম্মাননা-২০১৭, গোল্ডেন পেন অ্যাওয়ার্ড-২০১৭, ইনডেক্স মিডিয়া স্টার অ্যাওয়ার্ড-২০১৭, চিত্রজগৎ অ্যাওয়ার্ড-২০১৬, নবপ্রজন্মের সেরা রন্ধনশিল্পী, অ্যাওয়ার্ড-২০১৬ প্রভৃতি। বাংলাদেশের গন্ডি পেরিয়ে রান্নার অনুষ্ঠানের অতিথি হিসেবে কাজ করছেন ভারতের জি বাংলার "রান্নাঘর", রূপসী বাংলার "বিদূষীর হেঁশেল", অঙ্কার টিভির "হেঁশেলে হৈ হৈ", আরতাজ টিভির রান্নাঘর, এবং কলকাতা লাইভে। এ ছাড়া ভারতের পত্রিকা আনন্দ বাজার, সংবাদ প্রতিদিনে, এই সময়, ম্যাগাজিন সানন্দা, হ্যাংলা হেঁশেল, হাংরি ও অভিষিক্তায় নিয়মিত তার রেসিপি ছাপা হচ্ছে। সানন্দা ক্লাবের আমন্ত্রণে কলকাতায় কিছুদিন আগে বাংলাদেশি খাবারের ওপর একটা ওয়ার্কশপ করিয়ে এসেছেন। এইচ আর নিয়ে বিজনেস আডমিনিস্ট্রেশনে মাস্টার্স করলেও রান্নায় বৈচিত্র আনা এবং পুষ্টি সচেতনতার জন্য নানারকম প্রশিক্ষণ নিয়েছেন।

রেডিসন বস্নু হোটেল ইন্টার্ন করেছেন। ন্যাশনাল হোটেল অ্যান্ড টু্যরিজম ট্রেনিং ইনস্টিটিউটে ফুড অ্যান্ড বেভারেজ প্রোডাকশনের এবং ফুড হাইজিন অ্যান্ড সেনিটেশন ওপর কোর্স করেছেন, মনিন বাংলাদেশ থেকে বারিস্তার প্রশিক্ষণ নিয়েছেন। ইংরেজি মাধ্যমের স্কুল পেস্নপেনে খন্ডকালীন শিক্ষক হিসেবে রান্নার ক্লাস নিয়ে থাকেন। উসেপ এ মেন্টর হিসেবে কাজ করছেন।

সম্প্রতি তিনি "ড্যান কেক ডেজার্ট জিনিয়াস-২০১৮" রিয়ালিটি টিভি শো-এর প্রধান বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এ ছাড়াও কলকাতার "কুলিনারি ডিভা-২০১৮" এর বিচারক হিসেবে কাজ করেছে। গত ২১ এপ্রিল নিউট্রিশন অলিম্পিয়ার্ড-২০১৮ এ ফেসিলিটেটর হিসেবে ছিলেন।

দেশের কুকিং রিয়ালিটি টিভি শো "রূপচাঁদা দি ডেইলি স্টার সুপার শেফ-২০১৮ এবং ২০১৯" এর রিজিওনাল রাউন্ডে ঢাকা বিভাগের বিচারক হিসেবে ও স্টুডিও রাউন্ডে অতিথি বিচারক হিসেবে এবং "সেরা রাঁধুনী-১৪২৪"তে গ্রম্নমার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। বাংলাদেশ এবং কলকাতার রেডিওতেও অনুষ্ঠান করে থাকেন। ঢাকায় অনুষ্ঠিত ৬৩তম কমনওয়েলথ পার্লামেন্টারি কনফারেন্সে প্রোগ্রামে রেডিসন বস্নু হোটেলের টিমের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী ও বিশেষ অতিথিদের খাবার ও ফুড প্রেজেন্টেশনের দায়িত্বে ছিলেন। দ্যা পেজেস ম্যাগাজিনের সাব-এডিটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। সুমিজ কিচেনের মাধ্যমে অনেকেই তার কাছ থেকে রান্নার প্রশিক্ষণ নিয়ে থাকেন। অনেক অনুষ্ঠানেই অতিথি হিসেবে থাকেন, উপস্থাপনা কিংবা বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছেন আফরোজা নাজনীন সুমি। রন্ধনশিল্পের পাশাপাশি ফটোগ্রাফি করতে ভালোবাসেন। বাংলাদেশ ফটোগ্রাফিক সোসাইটির আজীবন সদস্য হিসেবে বিভিন্ন ইভেন্টে অংশ নেন। উইমেন ইন্টারপ্রেনার্স অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাহী কমিটির সদস্য হিসেবে নানারকম গুরুত্বপূর্ণ কাজে নিয়োজিত আছেন। এ ছাড়াও তিনি বাংলাদেশ ফেডারেশন অব উইমেন ইন্টারপ্রেনার্স ও হেরিটেজ অ্যান্ড ক্রাফটস ফাউন্ডেশনের সদস্য।

শাহনাজ ইসলাম

রন্ধনশিল্প জগতে প্রিয় একটি মুখ। এক সময়কার শখের রান্না- এখন তা নেশা। একজন দক্ষ রন্ধনশিল্পীর পাশাপাশি একজন দক্ষ গৃহিণীও। বেগম বদরুন্নেসা মহিলা কলেজ থেকে বিএসসি পাস করেন তিনি। একদিন ফেসবুকে একটা রান্নার পেজ খোলেন শাহনাজ। যেখানে ব্যাপক সাড়া পান শাহনাজ। তারপর দৈনিক জনকণ্ঠ পত্রিকার সাংবাদিক তৌফিক অপু ভাইয়ের সহযোগিতায় রেসিপি লিখা শুরু করেন ২০১৩ সাল থেকে। তারপর বিভিন্ন রান্নার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে জয়ী হন। এটিএন বাংলা মালয়েশিয়ান পাম অয়েল সেরা রন্ধনশিল্পী-২০১৬তে অংশ নিয়ে বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন ও সারা বাংলাদেশে টপ ৬ হন শাহনাজ। প্রাণ ঘি ঐতিহ্যের ঘ্রাণ সিজেন-১৭ এর চ্যাম্পিয়ন হন। এরপর ওলিটালিয়া হ্যালদি কিচেন কন্টেস্টে ২য় রানার আপ হয়ে অনেক সুনাম অর্জন করেন। টানা ২ বছর জনকণ্ঠতে লিখার পর ধীরে ধীরে যুগান্তর, আমাদের সময়, ডেইলি অবজারভার, সমকাল, যায়যায়দিন ও ইত্তেফাকে রেসিপি লিখছেন শাহনাজ। পাশাপাশি বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে রান্নার প্রোগ্রাম করছেন। বাংলাভিশন 'আমাদের রান্নাঘর' নামক জনপ্রিয় রান্নার অনুষ্ঠানে-২০১৬ থেকে নিয়মিত কাজ করছেন রন্ধনশিল্পী শাহনাজ ইসলাম। এ ছাড়া বিভিন্ন জনপ্রিয় চ্যানেলগুলোতে আলোচনা অনুষ্ঠানগুলোতে সেলেব্রিটি হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন। জনপ্রিয় অনন্যা ম্যাগাজিন, দি পেইজ, আনন্দ ভুবন, রোদসী, সাপ্তাহিক, স্পস্ন্যাশ ম্যাগাজি, আনন্দ আলো ম্যাগাজিনের নিয়মিত রেসিপি লেখিকা। ইন্টারন্যাশনাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট অব কুলিনারি আর্টস থেকে ফুড অ্যান্ড প্রোডাকশনের ওপর প্রফেশনাল শেফ কোর্স করেছি। এসিই হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট থেকে ফুড আর্ট ও প্রেজেন্টেশনের ওপর কোর্স করেছেন। এ ছাড়া আরপিএল কুকিং লেভেল-১, বেকিং লেভেল-১ ও ২, ফুড প্রসেসিং ও কোয়ালেটি কন্ট্রোল লেভেল-১ করেছি। বর্তমানে বিটিইবি (বাংলাদেশ টেকনিক্যাল এডুকেশন বোর্ড)-এর কুকিংয়ের এসেসর হিসেবে আছেন। এটিএন বাংলা সেরা রন্ধন শিল্পী-২০১৬তে সেরা ছয় ও বিভাগীয় চ্যাম্পিয়ন, প্রাণ ঐতিহ্যের ঘ্রাণ সিজন-২ এর চ্যাম্পিয়ন ও ঙষরঃধষরুধ ঐবধষঃযু করঃপযবহ ঈড়হঃবংঃ ওলিটালিয়া হেলদি কিচেন কনটেস্ট-২০১৭ এর সেকেন্ড রানার আপেও অভিসিক্ত হয়েছেন তিনি। এ ছাড়াও বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতির জনপ্রিয় বাবিসাস অ্যাওয়ার্ড-২০১৬তে সেরা রন্ধনশিল্পী হিসেবে অ্যাওয়ার্ড পান তিনি। এ ছাড়াও দেশের বিভিন্ন জনপ্রিয় মিডিয়া ও সাংবাদিক সংগঠন থেকে বিভিন্ন শাখায় ৮টি অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন। জনপ্রিয় চ্যানেল বাংলাভিশনে আমাদের রান্নাঘর কুকিং শো এর নিয়মিত রন্ধন শিল্পী হিসেবে আছে। তার রান্নার জনপ্রিয়তা হৃদয় কেড়ে নিয়েছে সবার। এ ছাড়া ২০১৭তে ইন্ডিয়ার জনপ্রিয় ২টি চ্যানেল জি বাংলা ও আকাশ-৮ এ কুকিং শো'তে তার অংশগ্রহণ চোখে পড়ার মতো। রান্নার পাশাপাশি রেসিপি লেখায়ও তিনি সিদ্ধহস্ত। দেশের পত্রিকার পাশাপাশি বর্তমানে বিভিন্ন ইন্টারন্যাশনাল ম্যাগাজিনে রেসিপি লিখছেন নিয়মিত। বর্তমানে রানি গুঁড়া মসলা, স্যামসাং মাইক্রোওয়েভ, অল টাইম, প্রাণ ঝটপট ফ্রোজেন ফুড, রূপচাঁদা ইত্যাদি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের কুকিং এক্সপার্ট হিসেবে বর্তমানে কাজ করছেন। বর্তমানে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে এসেসসর হিসেবে বিভিন্ন জেলায় ও যাচ্ছেন। তা ছাড়া রান্নাকে পেশা হিসেবে নিয়ে ক্যাটারিং বিজনেসও করে আসছি ও বিভিন্ন সময় রান্নার ক্লাস নিয়ে থাকেন। শাহনাজ কিচেন নামের তার একটি কুকিং স্কুল, ইউটিউব চ্যানেল ও ফেসবুক পেজ আছে- যা বর্তমানে অনেক জনপ্রিয়তা পেয়েছে। রান্নাকে শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ায় তিনি বললেন- 'রান্নাকে ভালোবাসি, তাই রান্না নিয়েই থাকতে চাই। সত্যিকার অর্থে রান্নাকে আমি একটি অনন্য শিল্পের পর্যায়ে নিয়ে যেতে চাই। এক সময় আমাদের দেশে মনে করা হতো- নারীর কাজ হাঁড়ি ঠেলা! কিন্তু দেখে সেই নারীরা এখন রান্নাকে সমাজ বদলের হাতিয়ার করেছে। নিজের অর্থনৈতিক দিন বদলের হাতিয়ার করেছে। আমি নিজেও চাই নারীদের রন্ধনকেন্দ্রিক কর্মযজ্ঞটা আরও প্রসারিত হোক। যে কারণে আমি বহু অবহেলিত ও সুবিধাবঞ্চিত নারীদের বিনামূল্যে রান্না শেখার কোর্স করিয়েছি। পরে যখন দেখলাম তারা নিজেদের জায়গায় বেশ ভালো সাফল্য পেয়েছে তখন সত্যি আমি অনেক খুশি হই, অন্য রকম একটা তৃপ্তি পাই। রান্না কেন্দ্রিক আমার অনেক পরিকল্পনা আছে। আছে রান্নার চমৎকার একটি বই বের করার ইচ্ছা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে