logo
সোমবার ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৫

  নন্দিনী ডেস্ক   ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

অভাব ঘুচিয়ে স্বাবলম্বী

অভাব ঘুচিয়ে স্বাবলম্বী
ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার মাইজবাগ, রাজীবপুর ও বড়হিত ইউনিয়নের প্রায় ১০টি গ্রামের দুই শতাধিক নারী এখন হাতের কাজ করে বাড়তি আয় করছেন। নিজেদের ভাগ্য পরিবতের্ন পুরুষতান্ত্রিক সমাজের খোলস থেকে বেরিয়ে নিজের পরিশ্রমে সৎপথে উপাজর্ন করে সমাজে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করেছে এই নারীরা। শাড়ি ও সালোয়ার কামিজে জরি ও পুঁতি বসানোর কাজ করে সংসারের অভাব ঘোচানোর পাশাপাশি স্বাবলম্বী হচ্ছেন ওইসব সংগ্রামী নারী। শুধু তাই নয়Ñ অথার্ভাবে যেসব শিক্ষাথীর্ লেখাপড়া করতে পারছেন না কিংবা যাদের লেখাপড়া বন্ধ হয়ে গেছে তারাও যুক্ত হয়েছেন জরি পঁুতি বসানো কাজে। আবার স্বামীহারা ও স্বামী পরিত্যক্তা নারীর থেমে যাওয়া জীবনের চাকা ঘোরাতে নেমে পড়েছেন এ কাজে। নিপুণ হাতে সুই-সুতা দিয়ে তৈরি করছেন নকশা করা শাড়ি, থ্রি-পিস, লেহেঙ্গা ও ওড়না। কেউ সংসারের কাজের ফঁাকে আর কেউ বা পড়ালেখার পাশাপাশি এ কাজ করে বাড়তি আয় করছেন। এতে অনেকের সংসারে স্বাছন্দ্য ফিরে এসেছে। তাদের পাশাপাশি এলাকার অন্যরাও এ কাজে আগ্রহী হয়ে পড়েছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে