logo
রোববার ২৫ আগস্ট, ২০১৯, ১০ ভাদ্র ১৪২৬

  আমান হামিদ   ১৮ মার্চ ২০১৯, ০০:০০  

সুন্দরভাবে নিজেকে পরিবেশন

সুন্দরভাবে নিজেকে পরিবেশন
অনেকে ড্রেসিং টেবিলকে আভিজাত্যের সঙ্গেও তুলনা করে থাকেন। ড্রেসিং টেবিল শুধু সাজগোজের কথা মাথায় না রেখে জরুরি আসবাব হিসেবে ভাবাটাই ভালো, কারণ আয়নার পাশাপাশি বেশকিছু স্টোরেজ আর ড্রয়ার ইউনিট কিন্তু করা সম্ভব। এজন্য লক্ষ্য রাখতে হবে কিছু বিষয়ে।

\হসুন্দরভাবে উপস্থাপন করার মধ্যে কিন্তু নিজের আত্মবিশ্বাস অনেকটা বেড়ে যায়। তা পরিপূর্ণভাবে নিজেকে দেখা হোক কিংবা নিজের মুখশ্রীকে অনিন্দ্যসুন্দর করে সাজিয়ে তোলা হোক তাতে আয়নার কোনো জুড়ি নেই। তবে অন্দরে আয়না কথাটার মধ্যে 'ড্রেসিং টেবিল' যেন ওতপ্রোতভাবে জড়িত। কিন্তু বলতেই হয় অন্দরের অন্যতম নন্দন ড্রেসিং টেবিল।খুব সাধারণভাবে বলতে গেলে, ড্রেসিং টেবিল মেয়েদের উপকরণে ভরপুর থাকলেও ছেলেদের জন্যও কিন্তু অপরিহার্য। নারী কিংবা পুরুষের নিত্যদিনের নিজেকে তৈরি করা, সচেতনভাবে অফিস কিংবা জরুরি কাজে নিজেকে পরিপাটিরূপে উপস্থাপনের জন্য আয়না কিংবা ড্রেসিং টেবিল ভূমিকা অসামান্য।এবার চলে আসি ড্রেসিং টেবিলের কথায়।

ড্রেসিং টেবিল, ড্রেসিং ইউনিট মানে কেবল সাজগোজের একটা নির্দিষ্ট আসবাব বললে কিন্তু ভুল হবে। ড্রেসিং টেবিল অন্দরের একটা প্রয়োজনীয় আসবাব। অনেক ক্ষেত্রে আয়না স্টোরেজসহ বড় একটা ড্রেসিং ইউনিট বা সিটিংসহ আভিজাত্যে ভরপুর একটা ড্রেসিং টেবিল অথবা অনেক আলোয় ভরপুর একটা মেকআপ মিররসহ ইউনিট করে বানিয়ে ফেলা যায় এই ড্রেসিং টেবিল।কিছু ড্রেসিং টেবিল আছে নির্দিষ্ট অনুপাতের একটি আয়না ব্যবহার করে সঙ্গে ড্রয়ার ইউনিট আর ছোট-বড় কিছু বক্স স্টোরেজ বানানো হয়। আবার কিছু কিছু ক্ষেত্রে লম্বা আকৃতির একটা মিরর ওয়াল মাউন্টেড থাকে আর পাশে দৈর্ঘ্য-প্রস্থে ছোট ছোট কিছু বক্সের মতো স্টোরেজ করা হয়।তবে বর্তমানে দেখা যায় মেকআপ মিররসহ ড্রেসিং টেবিল খুবই জনপ্রিয়। বিশেষ করে সাজগোজ প্রিয় মেয়েদের কাছে। বেশকিছু কৃত্রিম আলো আর পছন্দের মেকআপ উপকরণ সাজিয়ে রাখার জন্য এই মেকআপ মিররসহ ড্রেসিং টেবিল খুবই নান্দনিক।কিনে ফেলা হোক আর বানিয়ে ফেলা হোক ড্রেসিং টেবিল দেয়ালের একটা পাশে স্থাপন করাই শ্রেয়। এতে ঘরটাকে যেমন বড় দেখাবে পাশাপাশি ড্রেসিং টেবিল অন্দরের একটি দৃষ্টিনন্দন আসবাবেও পরিণত হবে।

আর ঘরে যদি জায়গা কম থাকে তবে বড় একটা আয়না দেয়ালে ফিক্সড করে লাগিয়ে ফেলা উচিত আর প্রয়োজন মতো ছোটখাটো কিছু ওয়াল হেঙ্গিং ডিসপেস্ন বসিয়ে দিলে নিজের মতো করে কাস্টমাইজড ড্রেসিং টেবিল বানিয়ে নিতে পারেন।আবার এর চেয়ে জায়গা সংকুলান হবে যদি আয়না সামনের দিকে রেখেই পেছনে ৬ ইঞ্চি গভীরতার একটা স্টোরেজ বানিয়ে ফেলা যায়। সে ক্ষেত্রে, আয়নাটার দৈর্ঘ্য ৬৬ ইঞ্চি, প্রস্থ ৩০ ইঞ্চি করে নিলেই হয়। এতে সামনের দিকে হবে বড় একটা মিরর পাশাপাশি থাকল সাজসজ্জার বিভিন্ন উপকরণ রাখার মতো একটা উপযুক্ত স্টোরেজ।আসলে ড্রেসিং টেবিলের সঙ্গে কিন্তু একটা মনস্তাত্ত্বিক ব্যাপার জড়িত থাকে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে