logo
বৃহস্পতিবার, ২১ নভেম্বর ২০১৯, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ

স্বল্প খরচে মানসম্মত শিক্ষার আলোকবর্তিকা

স্বল্প খরচে মানসম্মত শিক্ষার আলোকবর্তিকা
আশুলিয়া স্থায়ী ক্যাম্পাসের একাংশ
প্রতিটি শিক্ষার্থীর স্বপ্ন থাকে স্কুল-কলেজের গন্ডি পেরিয়ে সে একটি বড় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হবে। যার নাম শুনলেই সবাই চিনবে। যার থাকবে বিশাল একটি ক্যাম্পাস, সুন্দর একটি পরিবেশ। নতুন স্বপ্ন, নতুন জায়গা, নতুন কিছু বন্ধুবান্ধব, নতুন কিছু শুভাকাঙ্ক্ষী। সবচেয়ে বড় কথা হলো শিক্ষা জীবনের ফেলে আসা ১২টি বছর আর তার সঙ্গে আগামী দিনে নিজের জীবনকে গঠন করার জন্য উচ্চশিক্ষার দ্বারপ্রান্তে দাঁড়িয়ে একজন শিক্ষার্থী তার বাবা-মার সামর্থ অনুযায়ী খুঁজে ফেরে প্রিয় সেই ক্যাম্পাস। সাধ, সাধ্য আর উচ্চশিক্ষার তীব্র আকাঙ্ক্ষাকে বাস্তবে রূপ দিতেই দীর্ঘ ২ যুগ পূর্বে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল উচ্চশিক্ষার বাতিঘর এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ। যার স্স্নোগান হলো 'স্বল্প খরচে মানসম্মত শিক্ষা'। বাংলাদেশে উচ্চশিক্ষা বিস্তারের স্বপ্ন নিয়ে একজন মানুষ বিদেশে আড়ম্বরপূর্ণ জীবন ফেলে দেশ মাতৃকায় শিক্ষা বিস্তারের কথা ভেবে ফিরে আসেন নিজ মাতৃভূমিতে। শহর থেকে গ্রাম প্রতিটি ঘরে ঘরে উচ্চশিক্ষার আলোকবর্তিকা পৌঁছে দিতে সারাজীবনে দেশে-বিদেশে অর্জিত মেধা মনন আর অর্থ ব্যয় করে গড়ে তোলেন শিক্ষায় নবদিগন্ত এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

একটি দেশ একটি জাতিকে এগিয়ে নিতে হলে প্রয়োজন সৎ ও দক্ষ জনবল। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শিক্ষা ও মানবসম্পদ তৈরির, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শিক্ষকতার মহান পেশায় দায়িত্ব পালনকালে অর্জিত জ্ঞান ও দেশের প্রতি নিজস্ব দায়বদ্ধতা থেকে এই উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি গড়ে তোলেন বিশিষ্ঠ সাহিত্যিক ও শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. আবুল হাসান মুহাম্মদ সাদেক। ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যকে পুঁজি করে নয়, বরং সৎ, দক্ষ, যোগ্য ও মেধাবী মানবসম্পদ গড়ে তোলার লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে স্বপ্ন ও সফলতার সেতুবন্ধন এইউবি।

দীর্ঘ দুই যুগের পথ পরিক্রমায় আজ এশিয়ান ইউনিভার্সিটি এক সুপ্রতিষ্ঠিত নাম। একটি বিশাল ক্যাম্পাস, হাজারো তরুণ-তরুণীর স্বপ্নবুনন আর স্বপ্নপূরণের ঠিকানা।

প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই এই বিশ্ববিদ্যালয় দেশের শিক্ষাব্যবস্থায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। ইতোমধ্যে এই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষা লাভ করে হাজারো শিক্ষার্থী স্ব-স্ব ক্ষেত্রে যোগ্যতার স্বাক্ষর রেখে চলছে। দেশে বিদেশে সব ক্ষেত্রে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষার্থীরা রাখছে অনবদ্য অবদান।

একটি জাতির পরিচয় তার শিক্ষার মাধ্যমে প্রতিফলিত হয়। এই দর্শনের ওপর ভিত্তি করে এইউবি তার মিশন ঠিক করেছে। নৈতিক ও মানবীয় পথ অনুসরণ করে শিক্ষা প্রদান করা যেখানে জাতির পরিচয়, সেখানে ঐতিহ্য, মূল্যবোধ ও নীতির প্রতিফলন ঘটে। দেশের সব স্তরের শিক্ষার্থীকে মানবসম্পদে পরিণত করার জন্য উপযোগী শিক্ষাব্যবস্থা চালু করেছে।

দরিদ্র মেধাবীদের সুযোগ দিতে বিশ্ববিদ্যালয়ে রয়েছে ফুল ফ্রি স্কলারশিপ ও ওয়েভার সুবিধা। মহান মুক্তিযুদ্ধে যারা দেশের তরে যুদ্ধ করেছেন সেই সব বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানরা এখানে সম্পূর্ণ বিনা খরচে পড়ালেখা করার সুযোগ পাচ্ছে। এ ছাড়া ভাইবোন ও স্বামী-স্ত্রীরা পাচ্ছে বিশেষ ছাড়। মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের প্রতিবছর প্রায় ২ কোটি টাকার শিক্ষাবৃত্তি দেয়া হচ্ছে।

এইউবিতে ৫টি অনুষদে মোট ১৩টি বিভাগ রয়েছে। এশিয়ান ইউনিভার্সিটি শুরু থেকেই বিশ্বমানের শিক্ষা কারিকুলামের মাধ্যমে একাডেমিক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে। ছাত্রছাত্রীদের মেধা ও মননকে বৃদ্ধি করার লক্ষ্যে একাডেমিক কার্যক্রমের পাশাপাশি বিষয়ভিত্তিক সেমিনার, সিম্পোজিয়াম, ক্যারিয়ার গাইডলাইন ওয়ার্কশপ, সায়েন্স ফেস্টিভাল, সফটওয়্যার-অ্যাপস প্রতিযোগিতা, স্টাডি টু্যর এবং বিভিন্ন ধরনের ইনডোর ও আউটডোর গেমসসহ সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড অব্যাহত রয়েছে।

এইউবি স্থায়ী ক্যাম্পাস প্রায় ১০ একর জায়গার ওপর নির্মিত। যা মনোরম পরিবেশ আর সু-নিবিড় ছায়াশীতল বিশ্বমানের ক্যাম্পাস। চমৎকার শিক্ষার পরিবেশ আর ডিজিটাল ক্যাম্পাস পেয়ে মুগ্ধ ছাত্রছাত্রীরা। সবুজে ভরপুর ক্যাম্পাসটি শিক্ষার্থীদের পদচারণায় মুখরিত। এখানে শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ফুটবল মাঠ, ক্রিকেট মাঠ, ভলিবল ও ব্যাডমিন্টন মাঠ। এ ছাড়াও ইনডোর গেমে টেবিল টেনিস, ক্যারাম, দাবাসহ অন্যান্য খেলাসামগ্রী সংযোজিত হয়েছে। শিক্ষার্থীদের জন্য রয়েছে ফ্রি ওয়াইফাই এবং ফ্রি যাতায়াত ব্যবস্থা।

এইউবি ঞবধপযরহম ঊভভরপরবহপু জধঃরহম-এর মাধ্যমে শিক্ষকদের পারফর্মেন্সের মূল্যায়ন করে থাকেন। প্রতি সেমিস্টারে একজন শিক্ষক যে বিষয়ে পাঠদান করেন, সে বিষয়ে শিক্ষকের জ্ঞানের পরিধি, শিক্ষাদান পদ্ধতি, উপস্থাপন কৌশল ও আচরণিক বিষয়গুলো বিবেচনার মাধ্যমে এ মূল্যায়ন করা হয়ে থাকে।

এইউবি'র সুবিশাল সমৃদ্ধ লাইব্রেরি এবং উন্নত কম্পিউটার ল্যাব রয়েছে। লাইব্রেরিতে রয়েছে বিভিন্ন বিষয়ে লক্ষাধিক দেশি-বিদেশি বই, জার্নাল ও গবেষণাপত্র। এখানে নিয়মিত পত্রিকা সংগ্রহীত থাকে। আধুনিক প্রযুক্তির বিষয়গুলো মাথায় রেখে লাইব্রেরিতে তিন শতাধিক সিডি-ভিসিডি রয়েছে। এ ছাড়াও এইউবির ডিজিটাল লাইব্রেরি পদ্ধতিতে ই-বুক ও ই-জার্নালের বিশাল সংগ্রহ রয়েছে। লাইব্রেরি কক্ষে শিক্ষার্থীরা ফ্রি অনলাইন সুবিধা পাচ্ছে। শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা ও ব্যবহারিক ক্লাসের জন্য পরিচ্ছন্ন ল্যাবটিতে আধুনিক সব সুযোগ-সুবিধা বিদ্যমান। প্রত্যেক শিক্ষার্থীর জন্য পৃথক কম্পিউটারের ব্যবস্থা রয়েছে।

এইউবি শিক্ষার মান বজায় রাখতে এ দেশের মানুষের কাছে দায়বদ্ধ। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সৎ ও দক্ষ শিক্ষার্থীরা বাংলাদেশকে বিশ্বের বুকে আরো উজ্জ্বল করে তুলে ধরবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

একটি বিশাল ক্যাম্পাস, একদল প্রশিক্ষিত ও দক্ষ শিক্ষকমন্ডলী, প্রিয় কিছু বন্ধুবান্ধব আর মেধাবী একটি প্রতিষ্ঠানের স্বপ্ন যারা দেখেছেন তাদের জন্যই এশিয়ান ইউনিভার্সিটি অব বাংলাদেশ।

য় ক্যাম্পাস ডেস্ক
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে