logo
বুধবার ২১ আগস্ট, ২০১৯, ৬ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ০৩ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষপে

কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের বৃক্ষরোপণ

য় ক্যাম্পাস ডেস্ক

জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালন বিদ্যা বিভাগের অষ্টম ও নবম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ অভিযান-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল সেন্টার 'ব্যথার দান'-এর পাশে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান। শিক্ষার্থীদের এমন মহতী উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি প্রফেসর ড. এএইচএম মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ের শোভাবর্ধণ ও পরিবেশ রক্ষায় শিক্ষার্থীদের ভূমিকা অগ্রগণ্য। আমি তাদের এমন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাচ্ছি এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের এ ধরনের কর্মকান্ডে আমার সার্বিক সহযোগিতা থাকবে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মো. সাহাবউদ্দিন, লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালন বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাহ্‌জাদা আহসান হাবিব, সহকারী অধ্যাপক সঞ্জয় কুমার মুখার্জী, চারুকলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ ফখর উদ্দিন, লোকপ্রশাসন ও সরকার পরিচালন বিদ্যা বিভাগের প্রভাষক অলি উলস্নাহ, প্রভাষক হারুনুর রশিদসহ বিভাগের বিভাগের শিক্ষার্থীরা। বিভাগের (ভরূপ্রাপ্ত) বিভাগীয় প্রধান সঞ্জয় কুমার মুখার্জী বলেন, একটি দেশে আয়তন এবং জনসংখ্যা অনুসারে ২৫ শতাংশ বনভূমি থাকার কথা থাকলেও সরকারি হিসেবে দেশে এর পরিমাণ সাড়ে ১৭ শতাংশ, যা বেসরকারি হিসাবে ১০ শতাংশেরও কম। ফলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য দিন দিন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে পরিবেশ। পরিবেশের এই ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করে আমাদের শিক্ষার্থীদের এ বৃক্ষরোপণ অভিযান একটি মহতী উদ্যোগ। লোকপ্রশাসন বিভাগ সর্বদা এমন মহতী উদ্যোগের পাশে ছিল, আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে। বৃক্ষরোপণকালে শিক্ষার্থীরা মেডিকেল সেন্টারের পাশাপাশি শিক্ষকদের ডরমিটরি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়কের পাশে আমলকী, অর্জুন, জামরুল, কামরাঙ্গা, বট, আম, আমড়া, চেরি, হরীতকী, বকুল, চালতাসহ বিভিন্ন প্রজাতির চারা রোপণ করা হয়।

জ্ঞানের সন্ধানে আমরা একসাথে

য় ক্যাম্পাস ডেস্ক

জ্ঞানের সন্ধানে আমরা একসাথে এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে কুমিলস্না বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) অধ্যয়নরত খুলনা বিভাগের সব শিক্ষার্থীকে নিয়ে গঠিত খুলনা বিভাগীয় ছাত্রকল্যাণ পরিষদের আয়োজনে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি হওয়া নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার বিকাল ৫টায় প্রশাসনিক ভবনের ৪১১নং কক্ষে এক জমকালো আয়োজনে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

খুলনা বিভাগীয় এ সংগঠনের সভাপতি আলাউদ্দিন বিশ্বাসের সভাপতিত্বে এবং আশিক রেজা আকাশ ও সানজিদা ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলা অনুষদের ডিন ও খুলনা বিভাগীয় ছাত্রকল্যাণ পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা প্রফেসর ড. জি এম মনিরুজ্জামান; অর্থনীতি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ড. শামিমুল ইসলাম; মার্কেটিং বিভাগের অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর মো. জিলস্নুর রহমান সিদ্দিক; একই বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর মোহাম্মদ আবদুলস্নাহ; গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের লেকচারার আলি আহসান; একই বিভাগের লেকচারার অর্ণব বিশ্বাস; অর্থনীতি বিভাগের লেকচারার রাশিদুল ইসলাম; জনতা ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার মো. আবু সাঈদসহ খুলনা বিভাগের শিক্ষার্থীরা।

অনুষ্ঠানে ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে (১৩তম ব্যাচ) ভর্তি হওয়া নবীন শিক্ষার্থীদের ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। অনুষ্ঠানে অতিথিরা তাদের বক্তব্যে নবীনদের স্বাগত জানিয়ে তাদের স্বপ্নকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে এখন থেকেই মনোযোগী হওয়ার আহ্বান করেন। এ সময় তারা পড়ালেখার পাশাপাশি বিভিন্ন খেলাধুলা, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ করে নিজের দক্ষতা বৃদ্ধি করার তাগিদ দেন। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে আনন্দে মেতে ওঠে খুলনার নবীন ও প্রবীণ শিক্ষার্থীরা।

কুবি শিক্ষার্থীদের তৈরি রোবট 'সিনা' হস্তান্তর

য় ক্যাম্পাস ডেস্ক

কুমিলস্না বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের হাতে তৈরি রোবট 'সিনা'কে হস্তান্তর অনুষ্ঠান সম্পন্ন হয়েছে। বাংলাদেশ পলস্নী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) মহাপরিচালক ড. মীজানুর রহমানের কাছে রোবট সিনাকে হস্তান্তর করা হয়। এর আগে দুপুর ১২টায় কুমিলস্না বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স ক্লাবের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞান অনুষদের হলরুমে রোবটিক্সবিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এবং আশপাশে অবস্থিত বিভিন্ন স্কুলের রোবটিক্সে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে এই কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালার প্রধান আকর্ষণ ছিল কুবি সায়েন্স ক্লাব সদস্যদের তৈরি রোবট 'সিনা'। কর্মশালাটি শুরু হয় রোবটের ইতিহাস, বাংলাদেশে রোবটের অগ্রগতি এবং বর্তমান ডিজিটাল যুগে রোবটের ভূমিকা দিয়ে। আলোচনার পাশাপাশি রোবট কীভাবে কাজ করে, প্রাথমিক লেভেল থেকে কীভাবে রোবট তৈরি করা যায়, কি কি জিনিস রোবটের জন্য দরকার হয় ইত্যাদি শিক্ষার্থীদের শেখানো হয়। শিক্ষার্থীরা রোবট সিনার সঙ্গে কথা বলেন এবং বিভিন্ন প্রশ্ন করেন। রোবট 'সিনা' সে সব প্রশ্নের উত্তর দেয়। রোবট হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমরান কবির চৌধুরী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পলস্নী উন্নয়ন একাডেমির (বার্ড) মহাপরিচালক ড. এম মিজানুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের, বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ড. একেএম রায়হান উদ্দিন, প্রকৌশল অনুষদের ডিন ড. সজল চন্দ্র মজুমদার এবং সায়েন্স ক্লাবের মডারেটর মো. আতিকুর রহমান।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে