logo
মঙ্গলবার ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫

  লেখা ও ছবি : মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী   ০৫ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

বাহারি রঙের বোতাম ফুল

বাহারি রঙের বোতাম ফুল
বোতাম ফুল গুল্মজাতীয় চিরসবুজ ফুলগাছ। এদের পরিবার-অসধৎধহঃযধপবধব, উদ্ভিদতাত্তি¡ক নাম-এড়সঢ়যৎবহধ মষড়নংধ, ইংরেজি নাম-এষড়নব অসধৎধহঃয, এড়সঢ়যৎবহধ, ইধপযবষড়ৎং নঁঃঃড়হং। গাছের গড় উচ্চতা ১ থেকে দেড় ফুট হয়ে থাকে। গাছ ঝোপালো, কাÐ ও পাতা রসালো। এর আদিনিবাস ভারতীয় উপমহাদেশের হিমালায়ান অঞ্চল। পাতা সবুজ, সরু ও লোমশ। আকারে ২ সেন্টিমিটার চওড়া। বোতাম আকৃতির বৃত্তাকার ছোট ছোট ফুল এক কথায় মনোরম। খাড়া লম্বা ডঁাটায় গাছের প্রায় প্রতি শাখা-প্রশাখায় ফুল ধরে। এর রয়েছে বাহারি রঙের ফুল। এর মধ্যে-সাদা, লাল, কমলা, বেগুনি ও ম্যাজেন্ডা রঙের ফুল অধিক পরিমাণে চোখে পড়ে। ফুল গন্ধহীন। ফুটন্ত ফুলের সৌন্দযর্ দীঘির্দন স্থায়ী থাকে। তা ছাড়া সংগৃহীত ফুল শুকিয়ে গেলেও সৌন্দযর্ বজায় থাকে। ফুল ফোটার মৌসুম গ্রীষ্ম ও বষার্। সরাসরি মাটি ও টবে চাষ উপযোগী ফুলগাছ। দো-অঁাশ থেকে বেলে দো-অঁাশ মাটি রৌদ্রজ্জ্বল পরিবেশ উঁচু থেকে মাঝারি উঁচু ভ‚মি ও পানি নিকাশের সুবিধাযুক্ত স্থানে বোতাম ফুলগাছ ভালো জন্মে। তবে সামান্য আদ্রর্ পরিবেশে এদের মানিয়ে নিতে তেমন সমস্যা হয় না। তা ছাড়া এ ফুলগাছ বেশ খরা সহনশীলও বটে। বীজের মাধ্যমে বংশ-বিস্তার করা হয়। বীজের আকার ক্ষুদ্রাকৃতির। এ ফুলগাছের রয়েছে ভেষজ গুণাগুণ। আমাদের দেশের প্রায় বাসাবাড়ি, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের বাগান, ছাদ বাগান, পাকর্ উদ্যানের সবর্ত্রই এ ফুলগাছ চোখে পড়ে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে