logo
বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

বর্ষার ফুল রেইন লিলি

বর্ষার ফুল রেইন লিলি
বর্ষায় বাংলার প্রকৃতিতে হরেক রকম ফুল ফোটে। ফুলের মিষ্টি সুবাস ছড়িয়ে থাকে আকাশে-বাতাসে। বর্ষায় ফোটা ফুলের মাঝে রেইন লিলি অন্যতম এক ফুল। নাম শুনে সহজেই বুঝে নেয়া যায় বর্ষার ফুল। বর্ষার প্রকৃতিতে এ ফুল হাজির হয় রং বাহারি রূপে। বর্ষায় ফোটে বলে রেইন লিলি নামে নামকরণ। বছরের অন্য সময়ে এর দেখা মিলে না। ফুল ফোটার ব্যাপ্তি বর্ষা থেকে শরৎকাল অবধি। আমাদের দেশে যত প্রকার লিলি ফুলের দেখা পাওয়া যায় তার অধিকাংশ বিদেশি প্রজাতির এবং এদের সুনির্দিষ্ট কোন বাংলা নাম নেই। পেঁয়াজ ফুল, রসুন ফুল, ঘাস ফুল নামে যে লিলি ফুলটি আমাদের দেশের মানুষের কাছে অধিক পরিচিত ইহাই মূলত রেইন লিলি ফুল। অন্যান্য নামের মাঝে ফেয়ার লিলি, রেইন ফ্লাওয়ার, জেফায়ার লিলি, ম্যাজিক লিলি উলেস্নখযোগ্য। এর পরিবার-অসধৎুষষরফধপবধব, উদ্ভিদতাত্বিক নাম- তবঢ়যুৎধহঃযবং ৎড়ংবধ আদিনিবাস পেরু, কলম্বিয়া ও ক্যারিবীয় অঞ্চল। সাদা, হলুদ ও গোলাপি রঙের ফুল ফোটতে দেখা যায়, তবে গোলাপি রঙের ফুল বেশি চোখে পড়ে। উর্ধ্বমুখী এ ফুলের স্টিক মাটি ফুঁড়ে বের হয়। পাপড়ি সংখ্যা ৫ থেকে ৭টি, মাঝে পরাগদন্ড অবস্থিত। ফুল গন্ধহীন। বহু বর্ষজীবী রেইন লিলি গাছ উচ্চতা প্রায় ৬ থেকে ৮ ইঞ্চি হয়। গাছ বেশ কষ্ট সহনশীল। অযত্ন অবহেলাও টিকে থাকতে পারে। এর গাছ গুচ্ছবদ্ধভাবে বেড়ে উঠে। গাছের পাতা গাঢ় সবুজ ও চিরল, লম্বায় প্রায় ৬ ইঞ্চি। টবে ও সরাসরি মাটিতে রোপণ উপযোগী ফুল গাছ। রৌদ্রউজ্জল উঁচু ভূমি ও পানি নিকাশের সুবিধাযুক্ত স্থানে ভালো জন্মে। রেইন লিলি ফুলের অন্যরকম বৈশিষ্ট্য হলো বাগান সজ্জায় একে সুবিধামতো নকশায় রোপণ করে বিভিন্ন রূপে রূপদান করা যায়। এতে ওই স্থানের সৌন্দর্য অনেক অনেক বৃদ্ধি পায়। ছাদ বাগানের টব ও বারান্দার টবে রেইন লিলি চোখে পড়ে। ফুল শেষে গাছে বীজ ধরে। তবে কন্দ চারার মাধ্যমে খুব সহজে এর বংশ বিস্তার করা যায়। এর কন্দ থেকে তৈরি করা যায় মূল্যবান পারফিউম অয়েল।

ছবি ও লেখা : মোহাম্মদ নূর আলম গন্ধী
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে